Dhaka , Tuesday, 25 June 2024
নিবন্ধন নাম্বারঃ ১১০, সিরিয়াল নাম্বারঃ ১৫৪, কোড নাম্বারঃ ৯২
শিরোনাম ::
তিতাসে ৬৭ বোতল বিদেশী মদসহ এক মাদক কারবারি গ্রেপ্তার।। চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে দিনব্যাপী স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্প সম্পন্ন।। পরীমণির সঙ্গে রাত্রীযাপনে চাকরি হারালেন এডিসি সাকলায়েন।। পাবনায় ট্রাক্টরের ফলায় পিষ্ট হয়ে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মৃত্যু।। তিতাসের মাছিমপুর আর.আর.ইনস্টিটিউশনের অভিভাবক সদস্য নুরুজ্জামানের ইয়াবা সেবনের ছবি ভাইরাল।। জল্লাদ শাহজাহান মারা গেলেন।। ঋণের চাপে চিরকুট লিখে আ.লীগ সভাপতির আত্মহত্যা।। নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার  প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সাংবাদিককে লাথি মেরে বের করে দিলেন।। হাকিমপুর উপজেলার নব-নির্বাচিত  চেয়ারম্যান কামাল হোসেন রাজ কে  সংবর্ধনা।। মাদক মামলায় আসামীদের সাজা বহালে ব্যবস্থা নিতে হবে- চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার।। শরীয়তপুরে সরকারি সার বিক্রির সময় ৩০ বস্তা সার জব্দ।। সাতক্ষীরায় মন্দিরের প্রসাদ খেয়ে শিশুর মৃত্যু- চিকিৎসাধীন ৭০ জন।। দেবহাটায় পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছের চারা বিতরণ।। রাসেল ভাইপার মারল এলাকাবাসী- পেট ফেঁটে বের হলো ৩০টি ছানা।। পাবনায় পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে দুই ভাইসহ তিনজনের মৃত্যু।। গাজীপুরে ২ শত গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৮ জন কে জরিমানা।। কক্স ওয়েস্ট ইন হোটেলে আমেরিকা প্রবাসী এক দম্পতিকে হয়রানীর অভিযোগ।। পাবনায় গৃহবধূর মরদেহ বাথরুমে স্বামী-সন্তান পলাতক।। খোকসা উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত।। সিলেটের প্রধান দুই নদীর ড্রেজিং প্রকল্পের ফাইল বন্ধী দেখার কেউ নেই।। পাবনায় আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন।। পাবনায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে শিশু নিহত- ঘাতক চালক আটক।। রাজধানীর চিড়িয়াখানার দর্শনার্থীদের অভ্যর্থনা হয় দুর্গন্ধে।। আমতলীতে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহত হওয়ার ঘটনায় পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠিত।। দেবহাটায় আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত।। সাংবাদিক অপহরণ মামলায় কাউছার মুন্সি সহ দুজনকে জেল গেইটে দুই দিনের জিজ্ঞাসাবাদে নির্দেশ।। দেবহাটায় বীরমুক্তিযোদ্ধার পরিবারে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ।। হিলিতে বিনামূল্যে কৃষকদের মাঝে আমন ধানের বীজ ও সার বিতরণ।। রূপগঞ্জে রাসেল ভাইপারসহ ডেঙ্গু মশার আবাসস্থল ধ্বংস কার্যক্রম উদ্বোধন দেশবাংলা সংগঠন।। দাউদকান্দিতে বঙ্গরত্ন শিক্ষার্থীদের শহীদ জাহানারা ইমাম পাঠাগারের ঈদ উপহার বিতরণ।।

৭ লাখ ইয়াবাভর্তি পাজেরোসহ মাদকসম্রাট গ্রেপ্তার।।

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : 12:33:04 pm, Monday, 20 May 2024
  • 25 বার পড়া হয়েছে

৭ লাখ ইয়াবাভর্তি পাজেরোসহ মাদকসম্রাট গ্রেপ্তার।।

তৌহিদ বেলাল 
  
ব্যুরো চিফ- কক্সবাজার।। 
কক্সবাজারের মেরিন ড্রাইভ রোডে বিলাসবহুল একটি পাজেরোতে ৭ লাখ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৪ জন মাদক ব্যবসায়ীকে। রোবববার -১৯ মে- রাত ২ টার দিকে এই অভিযান চালানো হয়।
সোমবার বেলা ১২ টায় অভিযান নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেন র‌্যাব—১৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল এইচ,এম সাজ্জাদ হোসেন। তিনি বলেন- মেরিন ড্রাইভ রোড হয়ে চিহ্নিত মাদক কারবারি আব্দুল আমিন তার মাদক সিন্ডিকেটের সদস্যসহ মাদকের একটি বিশাল চালান নিয়ে একটি বিলাস বহুল প্রাইভেটকারযোগে টেকনাফ থেকে কক্সবাজার শহরের দিকে আসছে।
এই তথ্যের ভিত্তিতে রাত ২ টার দিকে র‌্যাব—১৫ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের পাটুয়ারটেক চেংছড়ি মেরিন ড্রাইভ রোডে অস্থায়ী চেকপোস্ট স্থাপন করে মাদক উদ্ধারের একটি বিশেষ তল্লাশী অভিযান শুরু করে।
তল্লাশি চলাকালীন সময়ে টেকনাফ থেকে আসা কক্সবাজারগামী কালো রংয়ের একটি বিলাসবহুল পাজেরো থামার সংকেত দিলে তা অমান্য করে দ্রুত গতিতে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে র‌্যাবের আভিযানিক দল গাড়িটি থামাতে সক্ষম হয়।
পরে পাজেরো গাড়ির পেছনে বিশেষ কায়দায় রক্ষিত অবস্থা থেকে ৭ লাখ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। এসময় মাদক ব্যবসায়ের সাথে জড়িত ইয়াবা সম্রাট আব্দুল আমিনসহ মাদক সিন্ডিকেটের চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন— টেকনাফ ডেইল পাড়ার হাজী মোহাম্মদ আলীর ছেলে আবদুল আমিন -৪০- টেকনাফ গোদার বিল এলাকার আবু সৈয়দের ছেলে মোহাম্মদ আবদুল্লাহ -৩৫- একই এলাকার মৃত মোহাম্মদ হাশেমের ছেলে নুরুল আবছার -২৮- ও ডেইল পাড়ার মৃত দীল মোহাম্মদের ছেলে জাফর আলম -২৬-।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়- আব্দুল আমিন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী- ইয়াবা সম্রাট ও মাদক সিন্ডিকেটটির অন্যতম সদস্য। সে প্রথমে মুদির ব্যবসা এবং বিভিন্ন গরুর হাটের ইজারাদারি করতো। পরবর্তীতে সে পলিথিন ও কার্পেট ব্যবসায়ের সাথে সম্পৃক্ত হয়।
এসব ব্যবসার আড়ালে ইয়াবার ব্যবসায়ের সাথে জড়িয়ে পড়ে। বার্মাইয়া সিরাজের ইয়াবার বিশাল সব চালান সমুদ্রপথে মাছ ধরার ট্রলারযোগে আব্দুল আমিনের নিকট পৌঁছাতো। এ সকল ইয়াবার চালান দেশের অভ্যন্তরে নিয়ে এসে কয়েক দিনের জন্য নিজেদের হেফাজতে মজুদ করতো।
পরবর্তীতে মজুদকৃত মাদকের চালান স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী, রোহিঙ্গা ক্যাম্প এবং কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তার নির্ধারিত এজেন্টদের নিকট সুবিধাজনক সময়ে বিক্রি করে থাকে। তার বিরুদ্ধে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন থানায় মাদকসহ ১১টির অধিক মামলা রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর নির্দেশে নির্মিত চার সড়কের উদ্বোধন।।

পেকুয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্লাবিত,২ শত পরিবার পানিবন্দী।।

তিতাসে ৬৭ বোতল বিদেশী মদসহ এক মাদক কারবারি গ্রেপ্তার।।

৭ লাখ ইয়াবাভর্তি পাজেরোসহ মাদকসম্রাট গ্রেপ্তার।।

আপডেট সময় : 12:33:04 pm, Monday, 20 May 2024
তৌহিদ বেলাল 
  
ব্যুরো চিফ- কক্সবাজার।। 
কক্সবাজারের মেরিন ড্রাইভ রোডে বিলাসবহুল একটি পাজেরোতে ৭ লাখ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৪ জন মাদক ব্যবসায়ীকে। রোবববার -১৯ মে- রাত ২ টার দিকে এই অভিযান চালানো হয়।
সোমবার বেলা ১২ টায় অভিযান নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেন র‌্যাব—১৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল এইচ,এম সাজ্জাদ হোসেন। তিনি বলেন- মেরিন ড্রাইভ রোড হয়ে চিহ্নিত মাদক কারবারি আব্দুল আমিন তার মাদক সিন্ডিকেটের সদস্যসহ মাদকের একটি বিশাল চালান নিয়ে একটি বিলাস বহুল প্রাইভেটকারযোগে টেকনাফ থেকে কক্সবাজার শহরের দিকে আসছে।
এই তথ্যের ভিত্তিতে রাত ২ টার দিকে র‌্যাব—১৫ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের পাটুয়ারটেক চেংছড়ি মেরিন ড্রাইভ রোডে অস্থায়ী চেকপোস্ট স্থাপন করে মাদক উদ্ধারের একটি বিশেষ তল্লাশী অভিযান শুরু করে।
তল্লাশি চলাকালীন সময়ে টেকনাফ থেকে আসা কক্সবাজারগামী কালো রংয়ের একটি বিলাসবহুল পাজেরো থামার সংকেত দিলে তা অমান্য করে দ্রুত গতিতে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে র‌্যাবের আভিযানিক দল গাড়িটি থামাতে সক্ষম হয়।
পরে পাজেরো গাড়ির পেছনে বিশেষ কায়দায় রক্ষিত অবস্থা থেকে ৭ লাখ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। এসময় মাদক ব্যবসায়ের সাথে জড়িত ইয়াবা সম্রাট আব্দুল আমিনসহ মাদক সিন্ডিকেটের চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন— টেকনাফ ডেইল পাড়ার হাজী মোহাম্মদ আলীর ছেলে আবদুল আমিন -৪০- টেকনাফ গোদার বিল এলাকার আবু সৈয়দের ছেলে মোহাম্মদ আবদুল্লাহ -৩৫- একই এলাকার মৃত মোহাম্মদ হাশেমের ছেলে নুরুল আবছার -২৮- ও ডেইল পাড়ার মৃত দীল মোহাম্মদের ছেলে জাফর আলম -২৬-।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়- আব্দুল আমিন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী- ইয়াবা সম্রাট ও মাদক সিন্ডিকেটটির অন্যতম সদস্য। সে প্রথমে মুদির ব্যবসা এবং বিভিন্ন গরুর হাটের ইজারাদারি করতো। পরবর্তীতে সে পলিথিন ও কার্পেট ব্যবসায়ের সাথে সম্পৃক্ত হয়।
এসব ব্যবসার আড়ালে ইয়াবার ব্যবসায়ের সাথে জড়িয়ে পড়ে। বার্মাইয়া সিরাজের ইয়াবার বিশাল সব চালান সমুদ্রপথে মাছ ধরার ট্রলারযোগে আব্দুল আমিনের নিকট পৌঁছাতো। এ সকল ইয়াবার চালান দেশের অভ্যন্তরে নিয়ে এসে কয়েক দিনের জন্য নিজেদের হেফাজতে মজুদ করতো।
পরবর্তীতে মজুদকৃত মাদকের চালান স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী, রোহিঙ্গা ক্যাম্প এবং কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তার নির্ধারিত এজেন্টদের নিকট সুবিধাজনক সময়ে বিক্রি করে থাকে। তার বিরুদ্ধে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন থানায় মাদকসহ ১১টির অধিক মামলা রয়েছে।