Dhaka , Thursday, 13 June 2024
নিবন্ধন নাম্বারঃ ১১০, সিরিয়াল নাম্বারঃ ১৫৪, কোড নাম্বারঃ ৯২
শিরোনাম ::
জনপ্রিয়তা ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রফিক আমার নামে মিথ্যাচার চালাচ্ছে- আবুল বাশার  বাদশা।। নিখোঁজের দুদিন পর মাদরাসা ছাত্রের মরদেহ মিলল ঘাটলার নিচে।। ঝালকাঠিতে হত্যা মামলায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪ জনের যাবজ্জীবন।। সুন্দরগঞ্জে পশুর হাট নিয়ে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে ৩ রাউন্ড গুলি বিনিময়- পুলিশসহ আহত ১০।। নোয়াখালীতে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু।। পাবনায় শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নছিমন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ২ জন নিহত আহত -৭ জন।। রূপগঞ্জ কাঞ্চন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী রফিক সমর্থকদের উপর হামলা।। ৩৬ দিন পর যুবকের লাশ উত্তোলন- ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের।। শিবচরে আগুনে ১৩ গরু মারা গেছে।। দাবি হামার একটাই ঠাকুরগাঁওয়ে বিমানবন্দর ও মেডিকেল কলেজ চাই।। ঈদ উপলক্ষ্যে হিলিতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসাবে ভিজিএফের চাল বিতারণ।। প্রভাবশালীরা সরকারী হাটের জায়গা দখল করে দোকান ঘর নির্মাণ-হাট বসছে মহাসড়কের দুই পার্শ্বে।। রাজমিস্ত্রী ছাড়াই পাবনার তাওহীদ তৈরি করেছেন দৃষ্টিনন্দন দোতলা বাড়ি।। সদরপুরে রাসেল ভাইপার আতঙ্ক- ছয় মাসে ৫ জনের মৃত্যু।। চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ কদমতলী – ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নারীর বিষপান।। রাজাপুরে মাঠ দিবস ও কারিগরী আলোচনা অনুষ্ঠিত।। ঝালকাঠিতে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ হস্তান্তর।। রূপগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় প্রসুতির মৃত্যু।। রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা।। তিতাসে পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা উপলক্ষ্যে মা সমাবেশ অনুষ্ঠিত।। তিতাসে আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত।। বিশ্বকাপ উন্মাদনায় মেতেছে ওরাও।। রূপগঞ্জে মেয়র প্রার্থীর পোষ্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ।। মোরেলগঞ্জের ৫০ পরিবার পেলো মাথাগোঁজার ঠাই।। রামগঞ্জের লামনগর সমবায় সমিতির অফিসে দুধর্ষ চুরি- ৫ লক্ষাধিক টাকা লুটে নিয়েছে চোরেরা।। প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সদরপুরে জমি ও গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন।। শরীয়তপুরের জাজিরাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত ঘোষনা।। ঠাকুরগাঁয়ে ১শ বোতল ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার শিশু।। পাবনায় ফের কবরস্থান থেকে কঙ্কাল চুরি হিড়িক।। গাজীপুরে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন- ৪ জনকে টাকা জরিমানা।।

সুন্দরগঞ্জে আবারও মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজে বাঁধা।।

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : 01:09:11 pm, Saturday, 18 May 2024
  • 14 বার পড়া হয়েছে

হযরত বেল্লাল

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি।।

মডেল মসজিদের নামে অধিগ্রহনকৃত এবং নামজারি করা জমির অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গিয়ে ফের বাঁধার মুখে উপজেলা প্রশাসন। একাধিকবার বাঁধা দেওয়ার কারণে দীর্ঘ প্রায় চার বছর ধরে বন্ধ রয়েছে মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজ। বুধবার উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো. তরিকুল ইসলাম এবং সহকারি কমিশনার ভুমি মো. মাসুদুর রহমান পুলিশ বাহিনীর সহায়তা নিয়ে মসজিদের অধিগ্রহনকৃত জমির অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গেলে জমির মালিকগণ বাঁধা প্রদান করেন। এনিয়ে থানায় অভিযোগ করেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

২০২০ সালে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বাইপাস মোড়ে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরু করেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উত্তরা ঢাকার মুক্তা কনস্ট্রাকশন এন্ড কনভয় সার্ভিস লিমিটেড। এরপর জানতে পারেন মসজিদের নামে অধিগ্রহনকৃত জমির কাগজপত্র এবং টাকা লেনদেন নিয়ে জটিলতা রয়েছে। সে কারণে দীর্ঘ চার বছর ধরে ঝুলে রয়েছে মসজিদের নির্মাণ কাজ জানালেন, ঠিকাদার মাহমুদুন নবী মুরাদ। সেই থেকে পড়ে রয়েছে বালুু, পাথর ও রড়।

পৌরসভার পূর্ব বাইপাস মোড়ে স্থানীয়দের অর্থায়নে নির্মিত বাইপাস মোড় জামে মসজিদটি ভেঙে সেই স্থানে উপজেলা মড়েল মসজিদ নির্মাণের জায়গা নির্ধারণ করেন কর্তৃপক্ষ জানান, স্থানীয় মো. হাফিজার রহমান। তিনি বলেন, স্থানীয় মসজিদের সাড়ে পাঁচ শতক জমি মডেল মসজিদের নামে দান করে দেয়া হয়। এরপর কর্তৃপক্ষ আরও সাড়ে ৪৮ শতক জমি অধিগ্রহন করেন। অধিগ্রহনকৃত জমির মালিকগণ টাকা না পাওয়ায় জেলা প্রশাসকের নিকট আবেদন করেন। এরপর ঝুলে যায় মসজিদ নির্মাণ কাজ। যার কারণে স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ ওই স্থানের পাশে টিনের চালা তুলে দীর্ঘদিন হতে কষ্ট করে নামাজ আদায় করে আসছেন।

অধিগ্রহনকৃত জমির মালিক মো. মোস্তাফিজুর রহমান, মো. চাঁন মিয়া, মো. লাল মিয়া জানান, তারা এখনও জমি অধিগ্রহনের টাকা গ্রহন করেনি। তাদের দাবি বিধি বহিভূত অধিগ্রহকৃত জমির বসতবাড়ি ও দোকান ঘর উচ্ছেদ করে যদি সরকার মসজিদ নির্মাণ করে তাহলে তো করার কিছু নাই। জমির জটিলতা নিরসন না করে মডেল মসজিদের নামে নামজারি করা বেআইনি।

সুন্দরগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার ভুমি মো. মাসুদুর রহমান জানান, উপজেলা মডেল মসজিদের নামে সাড়ে ৪৮ শতক জমি নামজারি হয়েছে। অধিগ্রহনের টাকা না পাওয়ার বিষয়টি তার জানা নাই।

গাইবান্ধা জেলার ভুমি অধিগ্রহন শাখার সিনিয়র সহকারি কমিশনার মো. জাহিদ বিন কাশেম জানান, তাদের নামের জমির মালিকানার কাগজপত্র সঠিক আছে কিনা তা না জেনে কিছু বলা যাবে না। তারা কাগজপত্র নিয়ে এলে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

২০১৯ সালের ২ সেপ্টেম্বর টেন্ডারের মাধ্যমে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মুক্তা কনস্ট্রাকশন এন্ড কনভয় সার্ভিস লিমিটেড মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরু করেন ২০২০ সালে জানান গাইবান্ধা ইসলামী ফাউন্ডেশনের উপরিচালক মো. মিরাজুল ইসলাম। তার ভাষ্য মোট ৫৪ শতক জমির মধ্যে তিনতলা বিশিষ্ট মডেল মসজিদ নির্মাণ হবে। এতে ব্যয় হবে প্রায় ১৩ কোটি টাকা। কিন্তু জমি সংক্রান্ত জটিলতার কারনে দীর্ঘদিন হতে কাজ বন্ধ রয়েছে। নির্মাণ সামগ্রীর দাম বেড়ে যাওয়ায় পূর্বের বরাদ্দের মাধ্যমে বর্তমানে কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না। সে কারনে পুনরায় টেন্ডার হয়েছে।

গাইবান্ধা জেলা গণপূর্ত অধিদপ্তরের নিবার্হী প্রকৌশলী এস এম রফিকুল ইসলাম জানান, সুন্দরগঞ্জ উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণের জন্য পুনরায় টেন্ডার হয়েছে। এতে ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ১৬ কোটি ৩৫ লাখ ৮৯ হাজার টাকা। গত ২২/০৪/২০২৪ তারিখে ঘঙঅ (কার্যাদেশ) প্রদান করা হয়েছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে। সে মোতাবেক কাজ করতে গেলে বাঁধা প্রদান করেন জমি মালিকগণ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, মডেল মসজিদের জন্য নির্ধারিত জায়গাটি অধিগ্রহন করা হয়েছে। অধিগ্রহণ করা জমির ক্ষতিপূরণের টাকা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এলও শাখা থেকে প্রদান করা হয়। সরকারি গেটেজ অনুযায়ী জমি মালিক ইসলামি ফাউন্ডেশন। তাই মসজিদ নির্মানে কোন বাধা নেই। অল্প সময়ের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধ সমাধান করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর নির্দেশে নির্মিত চার সড়কের উদ্বোধন।।

পেকুয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্লাবিত,২ শত পরিবার পানিবন্দী।।

জনপ্রিয়তা ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রফিক আমার নামে মিথ্যাচার চালাচ্ছে- আবুল বাশার  বাদশা।।

সুন্দরগঞ্জে আবারও মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজে বাঁধা।।

আপডেট সময় : 01:09:11 pm, Saturday, 18 May 2024

হযরত বেল্লাল

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি।।

মডেল মসজিদের নামে অধিগ্রহনকৃত এবং নামজারি করা জমির অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গিয়ে ফের বাঁধার মুখে উপজেলা প্রশাসন। একাধিকবার বাঁধা দেওয়ার কারণে দীর্ঘ প্রায় চার বছর ধরে বন্ধ রয়েছে মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজ। বুধবার উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো. তরিকুল ইসলাম এবং সহকারি কমিশনার ভুমি মো. মাসুদুর রহমান পুলিশ বাহিনীর সহায়তা নিয়ে মসজিদের অধিগ্রহনকৃত জমির অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গেলে জমির মালিকগণ বাঁধা প্রদান করেন। এনিয়ে থানায় অভিযোগ করেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

২০২০ সালে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বাইপাস মোড়ে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরু করেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উত্তরা ঢাকার মুক্তা কনস্ট্রাকশন এন্ড কনভয় সার্ভিস লিমিটেড। এরপর জানতে পারেন মসজিদের নামে অধিগ্রহনকৃত জমির কাগজপত্র এবং টাকা লেনদেন নিয়ে জটিলতা রয়েছে। সে কারণে দীর্ঘ চার বছর ধরে ঝুলে রয়েছে মসজিদের নির্মাণ কাজ জানালেন, ঠিকাদার মাহমুদুন নবী মুরাদ। সেই থেকে পড়ে রয়েছে বালুু, পাথর ও রড়।

পৌরসভার পূর্ব বাইপাস মোড়ে স্থানীয়দের অর্থায়নে নির্মিত বাইপাস মোড় জামে মসজিদটি ভেঙে সেই স্থানে উপজেলা মড়েল মসজিদ নির্মাণের জায়গা নির্ধারণ করেন কর্তৃপক্ষ জানান, স্থানীয় মো. হাফিজার রহমান। তিনি বলেন, স্থানীয় মসজিদের সাড়ে পাঁচ শতক জমি মডেল মসজিদের নামে দান করে দেয়া হয়। এরপর কর্তৃপক্ষ আরও সাড়ে ৪৮ শতক জমি অধিগ্রহন করেন। অধিগ্রহনকৃত জমির মালিকগণ টাকা না পাওয়ায় জেলা প্রশাসকের নিকট আবেদন করেন। এরপর ঝুলে যায় মসজিদ নির্মাণ কাজ। যার কারণে স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ ওই স্থানের পাশে টিনের চালা তুলে দীর্ঘদিন হতে কষ্ট করে নামাজ আদায় করে আসছেন।

অধিগ্রহনকৃত জমির মালিক মো. মোস্তাফিজুর রহমান, মো. চাঁন মিয়া, মো. লাল মিয়া জানান, তারা এখনও জমি অধিগ্রহনের টাকা গ্রহন করেনি। তাদের দাবি বিধি বহিভূত অধিগ্রহকৃত জমির বসতবাড়ি ও দোকান ঘর উচ্ছেদ করে যদি সরকার মসজিদ নির্মাণ করে তাহলে তো করার কিছু নাই। জমির জটিলতা নিরসন না করে মডেল মসজিদের নামে নামজারি করা বেআইনি।

সুন্দরগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার ভুমি মো. মাসুদুর রহমান জানান, উপজেলা মডেল মসজিদের নামে সাড়ে ৪৮ শতক জমি নামজারি হয়েছে। অধিগ্রহনের টাকা না পাওয়ার বিষয়টি তার জানা নাই।

গাইবান্ধা জেলার ভুমি অধিগ্রহন শাখার সিনিয়র সহকারি কমিশনার মো. জাহিদ বিন কাশেম জানান, তাদের নামের জমির মালিকানার কাগজপত্র সঠিক আছে কিনা তা না জেনে কিছু বলা যাবে না। তারা কাগজপত্র নিয়ে এলে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

২০১৯ সালের ২ সেপ্টেম্বর টেন্ডারের মাধ্যমে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মুক্তা কনস্ট্রাকশন এন্ড কনভয় সার্ভিস লিমিটেড মসজিদ নির্মাণ কাজ শুরু করেন ২০২০ সালে জানান গাইবান্ধা ইসলামী ফাউন্ডেশনের উপরিচালক মো. মিরাজুল ইসলাম। তার ভাষ্য মোট ৫৪ শতক জমির মধ্যে তিনতলা বিশিষ্ট মডেল মসজিদ নির্মাণ হবে। এতে ব্যয় হবে প্রায় ১৩ কোটি টাকা। কিন্তু জমি সংক্রান্ত জটিলতার কারনে দীর্ঘদিন হতে কাজ বন্ধ রয়েছে। নির্মাণ সামগ্রীর দাম বেড়ে যাওয়ায় পূর্বের বরাদ্দের মাধ্যমে বর্তমানে কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না। সে কারনে পুনরায় টেন্ডার হয়েছে।

গাইবান্ধা জেলা গণপূর্ত অধিদপ্তরের নিবার্হী প্রকৌশলী এস এম রফিকুল ইসলাম জানান, সুন্দরগঞ্জ উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণের জন্য পুনরায় টেন্ডার হয়েছে। এতে ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ১৬ কোটি ৩৫ লাখ ৮৯ হাজার টাকা। গত ২২/০৪/২০২৪ তারিখে ঘঙঅ (কার্যাদেশ) প্রদান করা হয়েছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে। সে মোতাবেক কাজ করতে গেলে বাঁধা প্রদান করেন জমি মালিকগণ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, মডেল মসজিদের জন্য নির্ধারিত জায়গাটি অধিগ্রহন করা হয়েছে। অধিগ্রহণ করা জমির ক্ষতিপূরণের টাকা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এলও শাখা থেকে প্রদান করা হয়। সরকারি গেটেজ অনুযায়ী জমি মালিক ইসলামি ফাউন্ডেশন। তাই মসজিদ নির্মানে কোন বাধা নেই। অল্প সময়ের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধ সমাধান করা হবে।