Dhaka , Thursday, 30 May 2024
নিবন্ধন নাম্বারঃ ১১০, সিরিয়াল নাম্বারঃ ১৫৪, কোড নাম্বারঃ ৯২
শিরোনাম ::
চার লেনে উন্নিত হচ্ছে সোনাইমুড়ী-রামগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়ক- জনমনে উচ্ছাস।। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এর শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ঠাকুরগাঁওয়ে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ ও বই প্রদর্শনী।। সাতক্ষীরায় জমে উঠেছে কুরবানির পশুর হাট।। পাবনার ৩ উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যাঁরা।। হত্যা করে ফেলল মেঘনা নদীতে- জেলের রক্তাক্ত মরদেহ মিলল সন্দ্বীপে।। রূপগঞ্জে মাদ্রাসার জমি রক্ষার-দাবিতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন।। ডিমলায় ঝড়ে উড়ে গেল দেড় শতাধি বাড়িঘর।। রূপগঞ্জের কাঞ্চন পৌরসভা নির্বাচনে কমিশনার প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা।। আটঘরিয়ায় টানা দ্বিতীয় বারের মত চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন তানভীর- ভাইস চেয়ারম্যান মহিদুল- তহুরা।। সুন্দরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচিত হলেন যারা।। জিংক ধান-বঙ্গবন্ধু -১০০ শীর্ষক কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত।। তিতাসে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত।। সাংবাদিকদের মারধরের ঘটনার সপ্তাহ্ পেরিয়েছ গেলেও আসামী গ্রেফতার করেনি পুলিশ।। প্রবাসীদের সচেতন করতে হুন্ডি বিরোধী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।। হিলি সীমান্তে বিজিবি বিএসএফের ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত।। ঘূর্নিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত আমতলীর বিভিন্ন এলাকায় ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত।। মেলান্দহে দিদারুল পাশা ও মাদারগঞ্জে রায়হান রহমতুল্লাহ চেয়ারম্যান নির্বাচিত।।  নোয়াখালীতে নির্বাচনী সহিংসতায় গুলিবিদ্ধ ৫।। নোয়াখালীতে তিন উপজেলায় আওয়ামী লীগ নেতারা জয়ী।। শরীয়তপুরের ডামুড্যায় আবদুর রশিদ ও গোসাইরহাটে মোশরফ হোসেন চেয়ারম্যান নির্বাচিত।। রামগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধে ১ জন নিহত।। তিতাসে বলগেটের ধাক্কায় সেতু ভেংগে নদীতে, জনসাধারণের চরম ভোগান্তি।। সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে নারীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার।। দেবহাটায় জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন-এ্যাডভোকেসি ও পরিকল্পনা সভা।। দেবহাটা উপজেলা নির্বাচনে নবনির্বাচিতদের সংবর্ধনা।। আমতলীতে ঘূর্নিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণ।। রেমালের আক্রমনে মোরেলগঞ্জে ২ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী।। ৪৮ ঘন্টা বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন পবিপ্রবি- ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা।। রূপগঞ্জে শেখ হাসিনা সরণির মূলসড়কের পরিবর্তে সার্ভিস রোডে বিআরটিসি বাস চলাচলের দাবি।। হিলিতে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে অবহিতকরন ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত।।

শরীয়তপুরে চিকিৎসা দিতে দেরি হওয়ায় দুই চিকিৎসককে মারধর করলেন শ্রমিক নেতা।।

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : 05:11:35 am, Sunday, 5 May 2024
  • 21 বার পড়া হয়েছে

শরীয়তপুরে চিকিৎসা দিতে দেরি হওয়ায় দুই চিকিৎসককে মারধর করলেন শ্রমিক নেতা।।

জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর।।
শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ছেলেকে চিকিৎসা দিতে দেরি হওয়ায় দুই চিকিৎসককে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করার অভিযোগ উঠেছে আন্তঃ জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এলিম পাহাড়ের বিরুদ্ধে। 
শনিবার -০৪ মে- দুপুরে জেলা সদর হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ঘন্টাব্যাপী হাসপাতালের সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখে চিকিৎসকরা।
পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়- রবিবার দুপুরে একটি মারামারির ঘটনায় মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন শ্রমিক নেতা এলিম পাহাড়ের ছেলে অভি পাহাড় -১৫-। খবর পেয়ে কিছুক্ষণের মধ্যে হাসপাতালে ছুটে আসেন এলিম পাহাড় ও তার লোকজন। এসময় হাসপাতালের জরুরী বিভাগে দায়িত্বপালন করছিলেন চিকিৎসক লিমিয়া সাদিয়া। আর তার পাশেই ময়নাতদন্তের রিপোর্ট তৈরি করছিলেন চিকিৎসক শাহরিয়ার ইয়াছিন। এসময় এলিম পাহাড় তার ছেলেকে দ্রুত চিকিৎসা না দেওয়ার অভিযোগ তুলে কর্তব্যরত চিকিৎসক লিমিয়া সাদিনাকে গালমন্দ শুরু করলে চিকিৎসক শাহরিয়ার ইয়াছিন প্রতিবাদ করেন। আর তখনি চিকিৎসক শাহরিয়ার ইয়াছিনের শার্টের কলার ধরে সকলের সামনে তাকে চর থাপ্পড় দেয়া হয় এবং চিকিৎসকের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তছনছ করে নষ্ট করে ফেলা হয়।
এসময় চিকিৎসকের চিৎকার শুনে হাসপাতালটির তত্ত্বাবধায়ক হাবিবুর রহমান ছুটে আসলে তাকেও ধাক্কা দেয়ার পাশাপাশি টানাহ্যাচরা করা হয়। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসার আগেই পালিয়ে যায় এলিম পাহাড় ও তার লোকজন। পরে অভিযান চালিয়ে এলিম পাহাড়কে আটক করে পুলিশ। 
আটকের আগে অভিযুক্ত শ্রমিক নেতা এলিম পাহাড় মুঠোফোনে বলেন- হাসপাতালে আমার ছেলেকে নিয়ে আসার পর ২ ঘন্টার মধ্যে কোন ডাক্তার চিকিৎসা দিতে আসেনি। আমার ছেলে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে ছিলো। চিকিৎসককে বললে ওনি শুধু বলেন আমার সময় হলে দেখবো।
ডাক্তার শাহরিয়ার ইয়াছিন অভিযোগ করে বলেন- আমি জরুরি বিভাগে বসে প্রশাসনিক কাজ করছিলাম। তখন চিকিৎসক লিমিয়া অন্য একটি রোগী দেখছিলেন। এলিম পাহাড় এসেই ডাক্তার লিমিয়ার উপরে চড়াও হন। আমি তাকে বললাম একটু অপেক্ষা করে রোগি দেখবেন। তখন বলেন তুই কেন আসলি না বলেই চর থাপ্পড় মারেন।
জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক লিমিয়া সাদিয়া বলেন- আমি রোগিটাকে দেখে হ্যান্ড গ্লোবস পরে আসতে যতটুকু সময় লাগে ওই টুকুই দেরি হয়েছিল। এতেই ওই শ্রমিক নেতা ডাক্তার শাহরিয়ার ইয়াছিনের উপরে ক্ষিপ্ত হয়ে পরেন। আমি তাকে থামাতে গেলে সে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে গায়ে হাত তুলেন।
জানতে চাইলে শরীয়তপুর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফারুক চৌকিদার বলেন- আমি যতটুকু জেনেছি তার ছেলেকে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য ডাক্তার এক থেকে দেড় ঘন্টা অপেক্ষা করেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে রাগারাগি করেছেন। তবে গায়ে হাত দেয়ার বিষয়টি জানা নেই। সে যদি চিকিৎসকের গায়ে হাত দিয়ে থাকেন- তাহলে তার বিরুদ্ধে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করতে পারেন।
শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক হাবিবুর রহমান বলেন- আমি চিৎকার শুনে জরুরি বিভাগে গেলে আমার সাথেও তিনি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। আমি ঘটনাস্থলে গিয়েও দেখেছি তার রোগী পুরোপুরি সুস্থ। আমি প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানাই। 
এবিষয়ে জানতে চাইলে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার -নড়িয়া সার্কেল- আহসান হাবীব বলেন- এ ঘটনায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হচ্ছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর নির্দেশে নির্মিত চার সড়কের উদ্বোধন।।

পেকুয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্লাবিত,২ শত পরিবার পানিবন্দী।।

চার লেনে উন্নিত হচ্ছে সোনাইমুড়ী-রামগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়ক- জনমনে উচ্ছাস।।

শরীয়তপুরে চিকিৎসা দিতে দেরি হওয়ায় দুই চিকিৎসককে মারধর করলেন শ্রমিক নেতা।।

আপডেট সময় : 05:11:35 am, Sunday, 5 May 2024
জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর।।
শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ছেলেকে চিকিৎসা দিতে দেরি হওয়ায় দুই চিকিৎসককে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করার অভিযোগ উঠেছে আন্তঃ জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এলিম পাহাড়ের বিরুদ্ধে। 
শনিবার -০৪ মে- দুপুরে জেলা সদর হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ঘন্টাব্যাপী হাসপাতালের সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখে চিকিৎসকরা।
পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়- রবিবার দুপুরে একটি মারামারির ঘটনায় মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন শ্রমিক নেতা এলিম পাহাড়ের ছেলে অভি পাহাড় -১৫-। খবর পেয়ে কিছুক্ষণের মধ্যে হাসপাতালে ছুটে আসেন এলিম পাহাড় ও তার লোকজন। এসময় হাসপাতালের জরুরী বিভাগে দায়িত্বপালন করছিলেন চিকিৎসক লিমিয়া সাদিয়া। আর তার পাশেই ময়নাতদন্তের রিপোর্ট তৈরি করছিলেন চিকিৎসক শাহরিয়ার ইয়াছিন। এসময় এলিম পাহাড় তার ছেলেকে দ্রুত চিকিৎসা না দেওয়ার অভিযোগ তুলে কর্তব্যরত চিকিৎসক লিমিয়া সাদিনাকে গালমন্দ শুরু করলে চিকিৎসক শাহরিয়ার ইয়াছিন প্রতিবাদ করেন। আর তখনি চিকিৎসক শাহরিয়ার ইয়াছিনের শার্টের কলার ধরে সকলের সামনে তাকে চর থাপ্পড় দেয়া হয় এবং চিকিৎসকের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তছনছ করে নষ্ট করে ফেলা হয়।
এসময় চিকিৎসকের চিৎকার শুনে হাসপাতালটির তত্ত্বাবধায়ক হাবিবুর রহমান ছুটে আসলে তাকেও ধাক্কা দেয়ার পাশাপাশি টানাহ্যাচরা করা হয়। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসার আগেই পালিয়ে যায় এলিম পাহাড় ও তার লোকজন। পরে অভিযান চালিয়ে এলিম পাহাড়কে আটক করে পুলিশ। 
আটকের আগে অভিযুক্ত শ্রমিক নেতা এলিম পাহাড় মুঠোফোনে বলেন- হাসপাতালে আমার ছেলেকে নিয়ে আসার পর ২ ঘন্টার মধ্যে কোন ডাক্তার চিকিৎসা দিতে আসেনি। আমার ছেলে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে ছিলো। চিকিৎসককে বললে ওনি শুধু বলেন আমার সময় হলে দেখবো।
ডাক্তার শাহরিয়ার ইয়াছিন অভিযোগ করে বলেন- আমি জরুরি বিভাগে বসে প্রশাসনিক কাজ করছিলাম। তখন চিকিৎসক লিমিয়া অন্য একটি রোগী দেখছিলেন। এলিম পাহাড় এসেই ডাক্তার লিমিয়ার উপরে চড়াও হন। আমি তাকে বললাম একটু অপেক্ষা করে রোগি দেখবেন। তখন বলেন তুই কেন আসলি না বলেই চর থাপ্পড় মারেন।
জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক লিমিয়া সাদিয়া বলেন- আমি রোগিটাকে দেখে হ্যান্ড গ্লোবস পরে আসতে যতটুকু সময় লাগে ওই টুকুই দেরি হয়েছিল। এতেই ওই শ্রমিক নেতা ডাক্তার শাহরিয়ার ইয়াছিনের উপরে ক্ষিপ্ত হয়ে পরেন। আমি তাকে থামাতে গেলে সে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে গায়ে হাত তুলেন।
জানতে চাইলে শরীয়তপুর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফারুক চৌকিদার বলেন- আমি যতটুকু জেনেছি তার ছেলেকে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য ডাক্তার এক থেকে দেড় ঘন্টা অপেক্ষা করেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে রাগারাগি করেছেন। তবে গায়ে হাত দেয়ার বিষয়টি জানা নেই। সে যদি চিকিৎসকের গায়ে হাত দিয়ে থাকেন- তাহলে তার বিরুদ্ধে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করতে পারেন।
শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক হাবিবুর রহমান বলেন- আমি চিৎকার শুনে জরুরি বিভাগে গেলে আমার সাথেও তিনি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। আমি ঘটনাস্থলে গিয়েও দেখেছি তার রোগী পুরোপুরি সুস্থ। আমি প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানাই। 
এবিষয়ে জানতে চাইলে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার -নড়িয়া সার্কেল- আহসান হাবীব বলেন- এ ঘটনায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হচ্ছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে।