Dhaka , Tuesday, 21 May 2024
নিবন্ধন নাম্বারঃ ১১০, সিরিয়াল নাম্বারঃ ১৫৪, কোড নাম্বারঃ ৯২
শিরোনাম ::
অধ্যাপক বিমল চন্দ্র দাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ বিভিন্ন অনিয়মের ডিবি পরিচয়ে ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধারে পুলিশের গড়িমসি।। দুর্গাপুরে সেতু নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন এমপি রুহী।। রাত পোহালে কালিয়াকৈর  উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।। ইবির এমফিল ও পিএইডি প্রোগ্রামে ভর্তির আবেদন শুরু।। কালিয়াকৈরের অভিভাবক- কে হবেন।। তিতাসের পল্লীরাজ আইডিয়াল স্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া- সাংস্কৃতিক ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত।। ইবির ইনস্টিটিউট অব কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেলের নতুন পরিচালক ড. শাহজাহান।। টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ইবির জিয়া হলের প্রভোস্ট হলেন ড. জাকির।। লক্ষ্মীপুরের দুই উপজেলায় রাত পোহালেই ভোট উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।। ৭ লাখ ইয়াবাভর্তি পাজেরোসহ মাদকসম্রাট গ্রেপ্তার।। টেকনাফে অস্ত্র-গুলিসহ ১০ মামলার আসামি গ্রেপ্তার।। চকরিয়ায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত।। রাত পোহালেই-নোয়াখালীর তিন উপজেলায় ভোট।। ইবিতে আটকে গেল শিক্ষকদের প্রমোশন- শাপলার অসন্তোষ।। সেনবাগে প্রতিপক্ষ প্রার্থীর এজেন্টদের হত্যার হুমকি- কেন্দ্রে যেতে নিষেধ।। হোমনা উপজেলা নির্বাচনের ৮ জন প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ।। ইবিতে ভূমি ব্যবস্থাপনায় তথ্য অধিকার আইন শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত।। তিতাসের জিয়ারকান্দি ইউনিয়ন আ.লীগ অফিসের জায়গা পরিদর্শন করেন-স্থানীয় এমপি ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর।। ইবির সিন্ডিকেট- বিরোধিতার মুখে ভণ্ডুল নিয়োগ-পদোন্নতি।। শরীয়তপুরে প্রার্থীর টাকা নিতে অস্বীকৃতি প্রকাশ করায় পোলিং অফিসারকে মারধরের অভিযোগ।। ইরানের প্রেসিডেন্ট এব্রাহিম রাইসি হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় মৃত্যু! ঈশ্বরদীতে রেল নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য ফেনসিডিলসহ আটক।। গণধর্ষণের ঘটনা রাজনৈতিকভাবে অপব্যবহারের অভিযোগ বাদীর।। হিলির পাইকারি বাজারে জিরার দাম  ঊর্ধ্বমূখী প্রতি কেজি প্রতি বেড়েছে ১শ থেকে ১শ ২০ টাকা।। আর মাত্র ১দিন পরেই উপজেলা পরিষদ নির্বাচন  রামগঞ্জে জমে উঠেছে ভোটের মাঠ।।  হাতিয়াতে ৩০ কেজি হরিণের মাংস জব্দ।। আশুলিয়ায় নিবন্ধনহীন দুই বেসরকারি হাসপাতাল সিলগালা।। কমলগঞ্জের ফায়ার সার্ভিসের অগ্নি নির্বাপণ মহড়া অনুষ্ঠিত।। মোরেলগঞ্জে দুদকের উদ্যোগে রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিত অনুষ্ঠিত।।

ঝালকাঠিতে বৃষ্টির জন্য ইস্তিসকার নামাজ আদায় দুহাত তুলে কান্নায় চোখের পানি ঝরালেন মুসল্লিরা।।

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : 11:11:24 am, Wednesday, 24 April 2024
  • 12 বার পড়া হয়েছে

ঝালকাঠিতে বৃষ্টির জন্য ইস্তিসকার নামাজ আদায় দুহাত তুলে কান্নায় চোখের পানি ঝরালেন মুসল্লিরা।।

ঝালকাঠি প্রতিনিধি।।
সারাদেশে অনাবৃষ্টি ও তীব্র দাপদাহ অতিষ্ঠ জনজীবন। বৃষ্টির আশায় আকাশপানে তাকিয়ে মানুষ। এমন অবস্থায় গরম থেকে রক্ষা পেতে বৃষ্টি কামনায় ঝালকাঠিতে ইস্তিসকার নামাজ আদায় করেছেন শতাধিক মুসল্লিরা।
বুধবার-২৪ এপ্রিল-সকাল ১০টায় শহরের পশ্চিম ঝালকাঠি গাবখান ফেরিঘাট জামে মসজিদ মাঠে এ নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। নির্ধারিত সময়ের আগেই টুপি মাথায় জায়নামাজ নিয়ে মাঠে জড়ো হন স্থানীয় মুসল্লিরা। এতে ইমামতি করেন আলহাজ্ব মাওলানা মুহাম্মাদ আবু বকর সিদ্দিক। মসজিদের খতিব মাওলানা কাওছার হোসেন হামিদীর আয়োজনে খোলা আকাশের নিচে এ ইস্তিসকার নামাজ অনুষ্ঠিত হলে সর্বস্তরের মুসল্লিরা এ নামাজে অংশ নেয়।
শিশু-যুবক-মধ্য বয়সী বৃদ্ধসহ সর্বস্তরের ধর্মপ্রাণ মুসলনান ইস্তসকার নামাজ আদায় শেষে মোনাজাতে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। মহান আল্লাহর দরবারে দুই হাত তুলে সবার আকুতিতে আমীন আমীন শব্দে চোখের পানি ফেলে ফেলে বৃষ্টির কামনায় ফরিয়াদ করেন।
নামাজ আদায় করতে আসা মুসল্লি মো. রাজু খান বলেন-বৃষ্টিবাদল নেই। খুব তাপ। ক্ষেত নষ্ট হচ্ছে। বৃষ্টি না হবার কারণে কৃষিতে এক প্রকার বিপর্যয় নেমে এসেছে। আল্লাহ যেন তার রহমতের বৃষ্টি দিয়ে জমিনকে শীতল করে দেন। তাই বৃষ্টি চেয়ে নামাজের মাধ্যমে কান্নাকাটি করে আল্লাহর কাছে সবাই দোয়া করেছেন।
ইমাম আলহাজ্ব মাওলানা মুহাম্মাদ আবু বকর সিদ্দিক বলেন, অনাবৃষ্টি ও অতি তাপপ্রবাহের কারণে জনজীবনে দুর্ভোগ নেমে এসেছে। এই অবস্থায় আল্লাহর সাহায্য ছাড়া আমরা নিরুপায়। তাই এই দাবদাহ থেকে মুক্তি পেতে বৃষ্টির আশায় আকাশের নিচে খোলা মাঠে ইস্তিসকার নামাজ আদায় করা হয়েছে। নামাজ শেষে মহান আল্লাহ পাকের দরবারে মাফ চেয়ে কান্নাকাটি করেছেন মুসল্লিরা।
তিনি আরও বলেন, কোরআন-হাসিদের আলোকে যতটুকু জানা গেছে, তা হলো মানুষের সৃষ্ট পাপের কারণেই মহান আল্লাহ এমন অনাবৃষ্টি ও খরা দেন। বৃষ্টিপাত না হলে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ-স.-সাহাবিদের নিয়ে খোলা ময়দানে ইস্তিসকার নামাজ আদায় করতেন। সে জন্য তারা মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে পাপের জন্য তওবা করে এবং ক্ষমা চেয়ে দুই রাকাত নামাজ আদায় করে বৃষ্টির জন্য প্রার্থনা করেছেন।
আয়োজকরা জানান, দীর্ঘদিন অনাবৃষ্টির কারণে মানুষ, পশুপাখি গাছপালাসহ সবাই খুব কষ্টে আছে। এজন্য তারা বৃষ্টির জন্য নামাজ পড়েছেন। বৃষ্টির দেখা নেই নদী-নালা, খাল-বিল, পুকুর শুকিয়ে গেছে। দিন যায় প্রতিদিনই তাপমাত্রা বাড়তে থাকে।
গত কয়েকদিন ধরে ঝালকাঠিতে তাপদাহ চলছে। প্রচণ্ড গরমে মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি নেই। রোদে কাজ করতে গিয়ে শ্রমজীবী মানুষ হাঁপিয়ে উঠছে। হাসপাতালে ডায়রিয়া সহ বিভিন্ন রোগের রুগীর চাপ বাড়ছে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর নির্দেশে নির্মিত চার সড়কের উদ্বোধন।।

পেকুয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্লাবিত,২ শত পরিবার পানিবন্দী।।

অধ্যাপক বিমল চন্দ্র দাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ বিভিন্ন অনিয়মের

ঝালকাঠিতে বৃষ্টির জন্য ইস্তিসকার নামাজ আদায় দুহাত তুলে কান্নায় চোখের পানি ঝরালেন মুসল্লিরা।।

আপডেট সময় : 11:11:24 am, Wednesday, 24 April 2024
ঝালকাঠি প্রতিনিধি।।
সারাদেশে অনাবৃষ্টি ও তীব্র দাপদাহ অতিষ্ঠ জনজীবন। বৃষ্টির আশায় আকাশপানে তাকিয়ে মানুষ। এমন অবস্থায় গরম থেকে রক্ষা পেতে বৃষ্টি কামনায় ঝালকাঠিতে ইস্তিসকার নামাজ আদায় করেছেন শতাধিক মুসল্লিরা।
বুধবার-২৪ এপ্রিল-সকাল ১০টায় শহরের পশ্চিম ঝালকাঠি গাবখান ফেরিঘাট জামে মসজিদ মাঠে এ নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। নির্ধারিত সময়ের আগেই টুপি মাথায় জায়নামাজ নিয়ে মাঠে জড়ো হন স্থানীয় মুসল্লিরা। এতে ইমামতি করেন আলহাজ্ব মাওলানা মুহাম্মাদ আবু বকর সিদ্দিক। মসজিদের খতিব মাওলানা কাওছার হোসেন হামিদীর আয়োজনে খোলা আকাশের নিচে এ ইস্তিসকার নামাজ অনুষ্ঠিত হলে সর্বস্তরের মুসল্লিরা এ নামাজে অংশ নেয়।
শিশু-যুবক-মধ্য বয়সী বৃদ্ধসহ সর্বস্তরের ধর্মপ্রাণ মুসলনান ইস্তসকার নামাজ আদায় শেষে মোনাজাতে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। মহান আল্লাহর দরবারে দুই হাত তুলে সবার আকুতিতে আমীন আমীন শব্দে চোখের পানি ফেলে ফেলে বৃষ্টির কামনায় ফরিয়াদ করেন।
নামাজ আদায় করতে আসা মুসল্লি মো. রাজু খান বলেন-বৃষ্টিবাদল নেই। খুব তাপ। ক্ষেত নষ্ট হচ্ছে। বৃষ্টি না হবার কারণে কৃষিতে এক প্রকার বিপর্যয় নেমে এসেছে। আল্লাহ যেন তার রহমতের বৃষ্টি দিয়ে জমিনকে শীতল করে দেন। তাই বৃষ্টি চেয়ে নামাজের মাধ্যমে কান্নাকাটি করে আল্লাহর কাছে সবাই দোয়া করেছেন।
ইমাম আলহাজ্ব মাওলানা মুহাম্মাদ আবু বকর সিদ্দিক বলেন, অনাবৃষ্টি ও অতি তাপপ্রবাহের কারণে জনজীবনে দুর্ভোগ নেমে এসেছে। এই অবস্থায় আল্লাহর সাহায্য ছাড়া আমরা নিরুপায়। তাই এই দাবদাহ থেকে মুক্তি পেতে বৃষ্টির আশায় আকাশের নিচে খোলা মাঠে ইস্তিসকার নামাজ আদায় করা হয়েছে। নামাজ শেষে মহান আল্লাহ পাকের দরবারে মাফ চেয়ে কান্নাকাটি করেছেন মুসল্লিরা।
তিনি আরও বলেন, কোরআন-হাসিদের আলোকে যতটুকু জানা গেছে, তা হলো মানুষের সৃষ্ট পাপের কারণেই মহান আল্লাহ এমন অনাবৃষ্টি ও খরা দেন। বৃষ্টিপাত না হলে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ-স.-সাহাবিদের নিয়ে খোলা ময়দানে ইস্তিসকার নামাজ আদায় করতেন। সে জন্য তারা মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে পাপের জন্য তওবা করে এবং ক্ষমা চেয়ে দুই রাকাত নামাজ আদায় করে বৃষ্টির জন্য প্রার্থনা করেছেন।
আয়োজকরা জানান, দীর্ঘদিন অনাবৃষ্টির কারণে মানুষ, পশুপাখি গাছপালাসহ সবাই খুব কষ্টে আছে। এজন্য তারা বৃষ্টির জন্য নামাজ পড়েছেন। বৃষ্টির দেখা নেই নদী-নালা, খাল-বিল, পুকুর শুকিয়ে গেছে। দিন যায় প্রতিদিনই তাপমাত্রা বাড়তে থাকে।
গত কয়েকদিন ধরে ঝালকাঠিতে তাপদাহ চলছে। প্রচণ্ড গরমে মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি নেই। রোদে কাজ করতে গিয়ে শ্রমজীবী মানুষ হাঁপিয়ে উঠছে। হাসপাতালে ডায়রিয়া সহ বিভিন্ন রোগের রুগীর চাপ বাড়ছে।