Dhaka , Thursday, 30 May 2024
নিবন্ধন নাম্বারঃ ১১০, সিরিয়াল নাম্বারঃ ১৫৪, কোড নাম্বারঃ ৯২
শিরোনাম ::
রামগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধে ১ জন নিহত।। তিতাসে বলগেটের ধাক্কায় সেতু ভেংগে নদীতে, জনসাধারণের চরম ভোগান্তি।। সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে নারীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার।। দেবহাটায় জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন-এ্যাডভোকেসি ও পরিকল্পনা সভা।। দেবহাটা উপজেলা নির্বাচনে নবনির্বাচিতদের সংবর্ধনা।। আমতলীতে ঘূর্নিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণ।। রেমালের আক্রমনে মোরেলগঞ্জে ২ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী।। ৪৮ ঘন্টা বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন পবিপ্রবি- ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা।। রূপগঞ্জে শেখ হাসিনা সরণির মূলসড়কের পরিবর্তে সার্ভিস রোডে বিআরটিসি বাস চলাচলের দাবি।। হিলিতে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে অবহিতকরন ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত।। দেশের উন্নয়নে সেবাইত-পুরোহিতদের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ-ধর্মমন্ত্রী।। রূপগঞ্জে তাঁতিদের মাঝে পলিস্টার সুতা বিতরণ।। নরসিংদীতে ইউপির সাবেক চেয়ারম্যানকে  কুপিয়ে হত্যা।। শিক্ষার্থীদের চাকরি খোঁজা নয়, চাকরি দেয়ার জায়গাটায় নিজেদের তৈরি করতে হবে- ইবি উপাচার্য।। কোম্পানীগঞ্জে ভোট থেকে সরে দাঁড়ালেন ২ প্রার্থী।। হোমনায় মোটরসাইকেল প্রতীকের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত।। নীলফামারতে চলছে ভোট গ্রহননীলফামারতে চলছে ভোট গ্রহন।। পাবনার ৩ উপজেলার কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছেছে নির্বাচনী  সরঞ্জাম।। প্রথম আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা বাংলাদেশ ২০২৪ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ধর্মমন্ত্রী-লাল-সবুজের পতাকার সম্মান বৃদ্ধি করতে হবে।। রিমালে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে এমপি হাবিবুন নাহার।। রেমালের আক্রমনে  লন্ডভন্ড মোরেলগঞ্জ।।  ইবির ধর্মতত্ত্বে ১ম মেধাতালিকার ভর্তি শুরু পহেলা জুন।। দিনাজপুরের হিলিতে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনাসভা-পুরস্কার বিতরণ।। তিতাসে সাব রেজিস্ট্রার হিসেবে শরীফুল ইসলামের যোগদান।। সরঞ্জাম বিতরণ নীলফামারীতে।। সাভারে সাংবাদিক আকাশকে মারধরের ঘটনায় গ্রেফতার ২।। আশ্রয় কেন্দ্র থেকে বাড়ি ফেরার পথে পানিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু।। চোখের সামনে ভেসে গেল ২ হাজার গবাদিপশু ও ১০ দোকান।। নোয়াখালীতে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীর মৃত্যু।। হিলিতে বোরো ধান সংগ্রহের লক্ষ্যে উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন।।

গত ১৮ বছরেও সংস্কার হয়নি হোটাটিয়া-নোয়াপাড়া সড়ক-হাজার হাজার মানুষের দূর্ভোগ।।

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : 02:08:47 pm, Friday, 19 April 2024
  • 32 বার পড়া হয়েছে

গত ১৮ বছরেও সংস্কার হয়নি হোটাটিয়া-নোয়াপাড়া সড়ক-হাজার হাজার মানুষের দূর্ভোগ।।

মোঃ মাসুদ রানা মনি
রামগঞ্জ লক্ষ্মীপুর থেকে।।
দীর্ঘ ১৮ বছরেও সংস্কার হয়নি রামগঞ্জ উপজেলার হোটাটিয়া- নোয়াপাড়া সড়কটি।  মাত্র ২ কিলোমিটার সড়ক। দীর্ঘ ১৮ বছরেও সংস্কার না হওয়ায় পুরো সড়ক জুড়ে খানাখন্দে ভরে গেছে ।ফলে  প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনায় পতিত হয়ে শারিরীক ও আর্থিক ক্ষতির শিকার হচ্ছেন এলাকাবাসী। তার উপর স্থানীয় লোকজনের মাছ চাষের কারনে পুকুর পাড়ের গাছপালা ভেঙ্গে পানিতে পড়ার কারনে কোথাও কোথাও সড়কটি সরু হয়ে সাধারণের চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।
বৃহস্পতিবার বিকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় রামগঞ্জ উপজেলার নোয়াপাড়া আকু আলী মার্কেট থেকে হোটাটিয়া বাজার পর্যন্ত সড়কের চিত্র।
এসময় স্থানীয় লোকজন জানান, প্রায় ১৫ বছর পূর্বে ৯নম্বর ভোলাকোট ইউনিয়নের নোয়াপাড়া আকু মার্কেট থেকে ২নম্বর নোয়াগাঁও ইউনিয়নের হোটাটিয়া বাজারে যাওয়ার একমাত্র সড়কটি পিচঢালাই দিয়ে নির্মান করা হয়।
নির্মানের পর থেকে অধ্যাবদি কোন জনপ্রতিনিধি সড়কটি সংস্কার তো দুরের কথা উপরুন্ত স্থানীয় ব্রীকফিল্ড মালিকদের সাথে আঁতাত করে ট্রলি চলাচলে সহযোগীতা ও মাটি বিক্রি করে সড়কের দফারফা করে দিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন স্থানীয় এলাকাবাসী।
স্থানীয় লোকজন ও সাবেক ইউপি সদস্য আবুল কালাম জানান-নোয়াপাড়া আকু মার্কেট থেকে হোটাটিয়া বাজারের দুরুত্ব মাত্র ২ কিলোমিটার। এ দুই কিলোমিটার সড়ক এলাকায় বারঘরিয়া-শিংবাইস, আশাপুর-হোটাটিয়া ও শৈরশৈসহ ৫টি গ্রামের দেড়শ পরিবারের প্রায় ১২-১৩ হাজার মানুষ বসবাস । উপজেলা সদর বা অন্য কোথাও যেতে হলে এ সড়কটির বিকল্প নেই। কিন্তু সড়কের দৈন্যদশার কারনে মানুষের চলাচলে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
ঢাকার বঙ্গবাজারের কাপড় ব্যবসায়ী শোহরাব হোসেন জানান, আমাদের গ্রামের পাশ্ব বর্তি এলাকায় দুইটিসহ মূল সড়কের পাশে ৫টি ব্রীকফিল্ড। এ ব্রীকফিল্ডগুলোর কারনে প্রতিদিন শতাধীক ট্রলি চলাচল করে। ট্রলির চাকার কারনে ভাঙ্গা সড়কগুলোতে বিশাল বিশাল গর্তে সয়লাভ। এলাকাবাসী খুবই কষ্টে আছেন বিকল্প কোন সড়ক না থাকার কারনে।
অটোরিক্সা চালক ও নোয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মোঃ সিরাজ মিয়া জানান, সড়কটির কারনে আমরা রিক্সা চালাতে পারিনা। একবার গেলে নাটবল্টু খুলে যায়। অনেক সময় দুইটি রিক্সা একসাথে পারাপার হতে গিয়ে পুকুর বা সড়কের পাশের ডোবানালাতে পতিত হয়ে আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুক্ষিণ হতে হয়। ট্রলি চলাচলের কারনে সড়কটিতে খানাখন্দে ভরা। ট্রলি চলাচলে বাধা দিতে গেলে তারা আমাদের হুমকি দেয়।
নোয়াপাড়া আকু মার্কেটের ব্যবসায়ী সিদ্দিক উল্যাহ জানান, শুধুমাত্র সড়কটি ভাঙ্গাচুরার কারনে ব্যস্ত এ বাজারটিতে এখন মানুষের আসা বন্ধ হয়ে গেছে। আমরা রাজনীতিবিদসহ জনপ্রতিনিধিদের কাছে সড়কটি সংস্কারের বার বার গেলেও তারা আমাদের কোন আশ^াস দিতে পারেননি। এছাড়া নোয়াপাড়া পুরান বাড়ীর মঞ্জুরুল ইসলাম উক্ত সড়কে দূর্ঘটনায় কবলিত হয়ে ঢাকার একটি হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
নোয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান  জানান, সব দফতরেই যোগাযোগ করেছি। কিন্তু সড়কগুলো সংষ্কারে কোন বাজেট বরাদ্ধ আনতে পারিনি। চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি যদি কিছু হয়।
এ ব্যপারে স্থানীয় সরকার বিভাগের-এলজিইডি-নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জাহিদ উল হাসান জানান-রামগঞ্জ উপজেলায় এত পাকা সড়ক যে আমরা তা সংষ্কারের হিমশিম খাচ্ছি। তালিকা ধরে ধরে পর্যায়ক্রমে সকল সড়ক পূর্ণনির্মান ও সংষ্কার করা হবে ইনশাল্লাহ।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর নির্দেশে নির্মিত চার সড়কের উদ্বোধন।।

পেকুয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্লাবিত,২ শত পরিবার পানিবন্দী।।

রামগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধে ১ জন নিহত।।

গত ১৮ বছরেও সংস্কার হয়নি হোটাটিয়া-নোয়াপাড়া সড়ক-হাজার হাজার মানুষের দূর্ভোগ।।

আপডেট সময় : 02:08:47 pm, Friday, 19 April 2024
মোঃ মাসুদ রানা মনি
রামগঞ্জ লক্ষ্মীপুর থেকে।।
দীর্ঘ ১৮ বছরেও সংস্কার হয়নি রামগঞ্জ উপজেলার হোটাটিয়া- নোয়াপাড়া সড়কটি।  মাত্র ২ কিলোমিটার সড়ক। দীর্ঘ ১৮ বছরেও সংস্কার না হওয়ায় পুরো সড়ক জুড়ে খানাখন্দে ভরে গেছে ।ফলে  প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনায় পতিত হয়ে শারিরীক ও আর্থিক ক্ষতির শিকার হচ্ছেন এলাকাবাসী। তার উপর স্থানীয় লোকজনের মাছ চাষের কারনে পুকুর পাড়ের গাছপালা ভেঙ্গে পানিতে পড়ার কারনে কোথাও কোথাও সড়কটি সরু হয়ে সাধারণের চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।
বৃহস্পতিবার বিকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় রামগঞ্জ উপজেলার নোয়াপাড়া আকু আলী মার্কেট থেকে হোটাটিয়া বাজার পর্যন্ত সড়কের চিত্র।
এসময় স্থানীয় লোকজন জানান, প্রায় ১৫ বছর পূর্বে ৯নম্বর ভোলাকোট ইউনিয়নের নোয়াপাড়া আকু মার্কেট থেকে ২নম্বর নোয়াগাঁও ইউনিয়নের হোটাটিয়া বাজারে যাওয়ার একমাত্র সড়কটি পিচঢালাই দিয়ে নির্মান করা হয়।
নির্মানের পর থেকে অধ্যাবদি কোন জনপ্রতিনিধি সড়কটি সংস্কার তো দুরের কথা উপরুন্ত স্থানীয় ব্রীকফিল্ড মালিকদের সাথে আঁতাত করে ট্রলি চলাচলে সহযোগীতা ও মাটি বিক্রি করে সড়কের দফারফা করে দিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন স্থানীয় এলাকাবাসী।
স্থানীয় লোকজন ও সাবেক ইউপি সদস্য আবুল কালাম জানান-নোয়াপাড়া আকু মার্কেট থেকে হোটাটিয়া বাজারের দুরুত্ব মাত্র ২ কিলোমিটার। এ দুই কিলোমিটার সড়ক এলাকায় বারঘরিয়া-শিংবাইস, আশাপুর-হোটাটিয়া ও শৈরশৈসহ ৫টি গ্রামের দেড়শ পরিবারের প্রায় ১২-১৩ হাজার মানুষ বসবাস । উপজেলা সদর বা অন্য কোথাও যেতে হলে এ সড়কটির বিকল্প নেই। কিন্তু সড়কের দৈন্যদশার কারনে মানুষের চলাচলে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
ঢাকার বঙ্গবাজারের কাপড় ব্যবসায়ী শোহরাব হোসেন জানান, আমাদের গ্রামের পাশ্ব বর্তি এলাকায় দুইটিসহ মূল সড়কের পাশে ৫টি ব্রীকফিল্ড। এ ব্রীকফিল্ডগুলোর কারনে প্রতিদিন শতাধীক ট্রলি চলাচল করে। ট্রলির চাকার কারনে ভাঙ্গা সড়কগুলোতে বিশাল বিশাল গর্তে সয়লাভ। এলাকাবাসী খুবই কষ্টে আছেন বিকল্প কোন সড়ক না থাকার কারনে।
অটোরিক্সা চালক ও নোয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মোঃ সিরাজ মিয়া জানান, সড়কটির কারনে আমরা রিক্সা চালাতে পারিনা। একবার গেলে নাটবল্টু খুলে যায়। অনেক সময় দুইটি রিক্সা একসাথে পারাপার হতে গিয়ে পুকুর বা সড়কের পাশের ডোবানালাতে পতিত হয়ে আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুক্ষিণ হতে হয়। ট্রলি চলাচলের কারনে সড়কটিতে খানাখন্দে ভরা। ট্রলি চলাচলে বাধা দিতে গেলে তারা আমাদের হুমকি দেয়।
নোয়াপাড়া আকু মার্কেটের ব্যবসায়ী সিদ্দিক উল্যাহ জানান, শুধুমাত্র সড়কটি ভাঙ্গাচুরার কারনে ব্যস্ত এ বাজারটিতে এখন মানুষের আসা বন্ধ হয়ে গেছে। আমরা রাজনীতিবিদসহ জনপ্রতিনিধিদের কাছে সড়কটি সংস্কারের বার বার গেলেও তারা আমাদের কোন আশ^াস দিতে পারেননি। এছাড়া নোয়াপাড়া পুরান বাড়ীর মঞ্জুরুল ইসলাম উক্ত সড়কে দূর্ঘটনায় কবলিত হয়ে ঢাকার একটি হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
নোয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান  জানান, সব দফতরেই যোগাযোগ করেছি। কিন্তু সড়কগুলো সংষ্কারে কোন বাজেট বরাদ্ধ আনতে পারিনি। চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি যদি কিছু হয়।
এ ব্যপারে স্থানীয় সরকার বিভাগের-এলজিইডি-নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জাহিদ উল হাসান জানান-রামগঞ্জ উপজেলায় এত পাকা সড়ক যে আমরা তা সংষ্কারের হিমশিম খাচ্ছি। তালিকা ধরে ধরে পর্যায়ক্রমে সকল সড়ক পূর্ণনির্মান ও সংষ্কার করা হবে ইনশাল্লাহ।