Dhaka , Saturday, 18 May 2024
নিবন্ধন নাম্বারঃ ১১০, সিরিয়াল নাম্বারঃ ১৫৪, কোড নাম্বারঃ ৯২
শিরোনাম ::
নির্বাচনী প্রচারণার সময় ককটেল বিস্ফোরনের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন।। সড়কের শৃংখলা নিয়ে মতবিনিময় করেছেন ওয়ারী ট্রাফিক পুলিশ।। রূপগঞ্জে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে প্রচারনা।। সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন চেয়ারম্যান প্রার্থী সফিউল ইসলাম।। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে দুর্গাপুরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।। আনোয়ার খাঁন মডার্ণ ডায়াগনস্টিক সেন্টার রামগঞ্জ শাখার শুভ উদ্বোধন।।  প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে ইবিতে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল।। তিতাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।। যমুনায় সিবিএ নির্বাচন- রবিউল সভাপতি শাহজাহান সম্পাদক নির্বাচিত।। আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব হলেন রামগঞ্জের কৃতি সন্তান আবদুর রহমান খাঁন।। মোরেলগঞ্জের পোলেরহাট বাজারে আগুনে ১১ টি দোকান পুড়ে ছাই-ক্ষতির পরিমান কোটি টাকা।। শরীয়তপুরে রাসেলস ভাইপার সাপ পিটিয়ে মারলো কৃষকরা।। ২২ বছর পর স্ত্রী হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত স্বামী গ্রেপ্তার।। জাজিরায় মাতৃদুগ্ধ বিষয়ে অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত।। ধামরাই সরকারি কলেজের অনার্স ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠিত।। মোরেলগঞ্জে তরুণ সংঘ ক্লাবের উদ্যোগে অধ্যক্ষ শাহাবুদ্দিন তালুকদারের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত।। পাবনায় ফ্যানের বাতাসে ধান উড়াতে গি‌য়ে কৃষকের মৃত্যু।। মাদারীপুরে ভোক্তা অধিকারে অভিযান- দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা।। মোটরসাইকেল মার্কার উৎসবমুখর উঠান বৈঠক।। নারায়ণগঞ্জ টিভি সাংবাদিক ফোরামের ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা।। জাজিরা পৌর সড়কে বছর পেরোলেও আলোর মুখ দেখেনি আলোকসজ্জা প্রকল্প।। রামগঞ্জে আনারস প্রতীকের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত।। পাবনায় পানি উন্নয়ন বোর্ডে -পাউবো- কর্মরত ৩৭ কর্মকর্তা-কর্মচারী একযোগে বদলি আবেদনে সমালোচনার ঝড়।। মোংলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আ: হামিদ শেখ কে গার্ড অব অনার।। দেবহাটায় পুষ্টি সপ্তাহ উদ্যাপন।। সখিপুর ইউনিয়ন স্ট্যান্ডিং কমিটির সভা।। দেবহাটা বাল্যবিবাহ ও নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে সভা।।  ঘুম থেকে উঠছে দেখতাম অস্ত্র আমাদের দিকে তাককরা- নাবিক রাজু।। দাউদকান্দিতে আইফোন না পেয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে এক কিশোরের আত্মহত্যা।। আটঘরিয়ায় হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে মোটরসাইকেল-ঘোড়া।।

ময়মনসিংহে স্থাপিত হলো হিজরা জনগোষ্ঠীর জন্য দেশের প্রথম মসজিদ।।

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : 06:28:16 am, Tuesday, 2 April 2024
  • 41 বার পড়া হয়েছে

ময়মনসিংহে স্থাপিত হলো হিজরা জনগোষ্ঠীর জন্য দেশের প্রথম মসজিদ।।

ফজলে এলাহি ঢালী-ময়মনসিংহ।।

 

 

ময়মনসিংহের দক্ষিণ চর কালিবাড়ী এলাকায় সরকারের আবাসন প্রকল্পের ৩৩টি ঘরে তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীর ৪০ জন বসবাস করছেন। গত ২৬ জানুয়ারি আবাসন প্রকল্পের পাশেই তাদের জন্য ৩৩ শতাংশ জায়গায় মসজিদ ও কবরস্থান উদ্বোধন করেন ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার উম্মে সালমা তানজিয়া। পরে তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীর সদস্যরা নিজেদের শ্রম ও অর্থে স্থাপন করেন ‘দক্ষিণ চর কালীবাড়ি আবাসন জামে মসজিদ’। রোজার ৩ দিন আগে উদ্ভোধনও করা হয়েছে মসজিদটি ।নিয়মিত সেখানে নামাজও পড়ছেন হিজরারা।হিজরা বা তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের জন্য প্রথম মসজিদটি স্থাপিত হলো ময়মনসিংহের ৩৩ নং চরকালীবাড়ী এলাকায়।হিজরাদের পাশপাশি স্থানীয়রাও এখন নামাজ পড়ছেন সেখানে।

ময়মনসিংহে তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠী হিজড়াদের জন্য নির্মাণ করা হয়েছে মসজিদ। নগরীর ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ চর কালিবাড়ী এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে সরকারি জমিতে নির্মিত টিনশেডের এই মসজিদে ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণসহ নিয়মিত নামাজ আদায় করছেন তারা। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে  প্রসংশায় ভাসছেন হিজড়ারা।

স্থানীয়রা জানান, হিজড়াদের আচার-আচরণে অনেকেই বিরক্ত হয়। কিন্তু অনেক দিন ধরে এই এলাকায় বসবাসকারী হিজড়াদের আচার-আচরণে এমনটি লক্ষ্য করা যায়নি। তারা সামাজিকভাবে সবার সঙ্গে মিলেমিশেই বসবাস করছেন। মসজিদ নির্মাণ করে তারা ধর্মীও শিক্ষাসহ মসজিদে নিয়মিত নামাজ আদায় করছেন। তাদের পাশাপাশি স্থানীয় মুসল্লিরাও মসজিদে আসছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা আঃমালেক  জানান, প্রথমে ভেবেছিলাম হিজড়ারা মসজিদ বানালেও নিয়মিত নামাজ পড়বে না।তবুও আমার মতো অনেকেই মনে করেছে দেখি তারা আসলেই ইসলামের পথে আসতে পারে কিনা- তবে এখন তারা ধর্মীয় শিক্ষাসহ শুদ্ধভাবে নামাজ আদায়ের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এজন্য তারা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার।

মতি হিজড়া বলেন, ছোটবেলায় ধর্মীয় শিক্ষার জন্য মক্তবে যেতাম। কিন্তু সবাই যখন বুঝতে পারেন আমি তৃতীয় লিঙ্গের, তখন থেকে আমাকে আর মসজিদে ঢুকতে দেওয়া হতো না। এখন থেকে আর কেউ আমাকে মসজিদে নামাজ পড়তে বাধা দিতে পারবে না।

দক্ষিণ চর কালীবাড়ি আবাসন জামে মসজিদের ইমাম আবদুল মোতালেব বলেন, আমরা সবাই আল্লাহর সৃষ্টি। কারো সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ ধর্মে নেই। সমাজের আর দশজনের মতো হিজড়ারাও মানুষ। তারা যেহেতু ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি নামাজ আদায় করতে চায়, তাই তাদেরকে সহযোগিতা করা উচিৎ। তারা খুব আন্তরিক। এলাকাবাসীও তাদের পছন্দ করে।

ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার উম্মে সালমা তানজিয়া স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, প্রথমে তারা আমার কাছে এসে অভিযোগ দিয়েছিল মসজিদে নামাজ পাড়তে বাঁধা দেওয়া হচ্ছে। পরে তারা নিজেরাই মসজিদ করতে আবেদন করে। যেহেতু আবাসন প্রকল্পের পাশেই খাস জায়গা ছিল, তাই মসজিদ নির্মাণে তাদেরকে জায়গা দিয়েছি। ধর্মের প্রতি তাদের আগ্রহ এবং স্থানীয় বাসিন্দাসহ ইমামদের সর্বাত্মক সহযোগিতার কারণে কাজটি সহজেই সম্পন্ন হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর নির্দেশে নির্মিত চার সড়কের উদ্বোধন।।

পেকুয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্লাবিত,২ শত পরিবার পানিবন্দী।।

নির্বাচনী প্রচারণার সময় ককটেল বিস্ফোরনের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন।।

ময়মনসিংহে স্থাপিত হলো হিজরা জনগোষ্ঠীর জন্য দেশের প্রথম মসজিদ।।

আপডেট সময় : 06:28:16 am, Tuesday, 2 April 2024

ফজলে এলাহি ঢালী-ময়মনসিংহ।।

 

 

ময়মনসিংহের দক্ষিণ চর কালিবাড়ী এলাকায় সরকারের আবাসন প্রকল্পের ৩৩টি ঘরে তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীর ৪০ জন বসবাস করছেন। গত ২৬ জানুয়ারি আবাসন প্রকল্পের পাশেই তাদের জন্য ৩৩ শতাংশ জায়গায় মসজিদ ও কবরস্থান উদ্বোধন করেন ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার উম্মে সালমা তানজিয়া। পরে তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীর সদস্যরা নিজেদের শ্রম ও অর্থে স্থাপন করেন ‘দক্ষিণ চর কালীবাড়ি আবাসন জামে মসজিদ’। রোজার ৩ দিন আগে উদ্ভোধনও করা হয়েছে মসজিদটি ।নিয়মিত সেখানে নামাজও পড়ছেন হিজরারা।হিজরা বা তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের জন্য প্রথম মসজিদটি স্থাপিত হলো ময়মনসিংহের ৩৩ নং চরকালীবাড়ী এলাকায়।হিজরাদের পাশপাশি স্থানীয়রাও এখন নামাজ পড়ছেন সেখানে।

ময়মনসিংহে তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠী হিজড়াদের জন্য নির্মাণ করা হয়েছে মসজিদ। নগরীর ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ চর কালিবাড়ী এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে সরকারি জমিতে নির্মিত টিনশেডের এই মসজিদে ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণসহ নিয়মিত নামাজ আদায় করছেন তারা। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে  প্রসংশায় ভাসছেন হিজড়ারা।

স্থানীয়রা জানান, হিজড়াদের আচার-আচরণে অনেকেই বিরক্ত হয়। কিন্তু অনেক দিন ধরে এই এলাকায় বসবাসকারী হিজড়াদের আচার-আচরণে এমনটি লক্ষ্য করা যায়নি। তারা সামাজিকভাবে সবার সঙ্গে মিলেমিশেই বসবাস করছেন। মসজিদ নির্মাণ করে তারা ধর্মীও শিক্ষাসহ মসজিদে নিয়মিত নামাজ আদায় করছেন। তাদের পাশাপাশি স্থানীয় মুসল্লিরাও মসজিদে আসছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা আঃমালেক  জানান, প্রথমে ভেবেছিলাম হিজড়ারা মসজিদ বানালেও নিয়মিত নামাজ পড়বে না।তবুও আমার মতো অনেকেই মনে করেছে দেখি তারা আসলেই ইসলামের পথে আসতে পারে কিনা- তবে এখন তারা ধর্মীয় শিক্ষাসহ শুদ্ধভাবে নামাজ আদায়ের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এজন্য তারা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার।

মতি হিজড়া বলেন, ছোটবেলায় ধর্মীয় শিক্ষার জন্য মক্তবে যেতাম। কিন্তু সবাই যখন বুঝতে পারেন আমি তৃতীয় লিঙ্গের, তখন থেকে আমাকে আর মসজিদে ঢুকতে দেওয়া হতো না। এখন থেকে আর কেউ আমাকে মসজিদে নামাজ পড়তে বাধা দিতে পারবে না।

দক্ষিণ চর কালীবাড়ি আবাসন জামে মসজিদের ইমাম আবদুল মোতালেব বলেন, আমরা সবাই আল্লাহর সৃষ্টি। কারো সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ ধর্মে নেই। সমাজের আর দশজনের মতো হিজড়ারাও মানুষ। তারা যেহেতু ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি নামাজ আদায় করতে চায়, তাই তাদেরকে সহযোগিতা করা উচিৎ। তারা খুব আন্তরিক। এলাকাবাসীও তাদের পছন্দ করে।

ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার উম্মে সালমা তানজিয়া স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, প্রথমে তারা আমার কাছে এসে অভিযোগ দিয়েছিল মসজিদে নামাজ পাড়তে বাঁধা দেওয়া হচ্ছে। পরে তারা নিজেরাই মসজিদ করতে আবেদন করে। যেহেতু আবাসন প্রকল্পের পাশেই খাস জায়গা ছিল, তাই মসজিদ নির্মাণে তাদেরকে জায়গা দিয়েছি। ধর্মের প্রতি তাদের আগ্রহ এবং স্থানীয় বাসিন্দাসহ ইমামদের সর্বাত্মক সহযোগিতার কারণে কাজটি সহজেই সম্পন্ন হয়েছে।