Dhaka , Wednesday, 24 July 2024
নিবন্ধন নাম্বারঃ ১১০, সিরিয়াল নাম্বারঃ ১৫৪, কোড নাম্বারঃ ৯২
শিরোনাম ::
কোটা সংস্কার আন্দোলন -ময়মনসিংহে লাঠিসোটা হাতে শিক্ষার্থীদের রাস্তা অবরোধ- বিজিবি মোতায়েন।। শরীয়তপুরে ফেসবুক লাইভে এসে ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ।। আমতলীতে ২য় শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ- ধর্ষক আটক।। সিলেট জেলা কর আইনজীবী সমিতির বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ।। যাত্রাবাড়ীতে রণক্ষেত্র, টোল প্লাজায় আগুন।। শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার আহ্বান পুলিশের।। কোটা সংস্কার আন্দোলন- বিক্ষোভে উত্তাল ইবি- ছাত্রলীগের কার্যালয় ভাঙচুর।। চট্টগ্রামে কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহতদের স্মরণে মহানগর বিএনপির গায়েবানা জানাজা।। লালপুরে পদ্মায় গোসলে নেমে ৩ শিশু নিখোঁজ ২ জনের মরদেহ উদ্ধার।। রূপগঞ্জে মামলা তুলে না নেয়ায় বাদীর বাড়ীঘরে হামলা- ভাংচুর- আগুন ১ জনকে কুপিয়ে জখম।। রাতে পোষ্ট- ভোরে তিন যুবক গ্রেফতার।। কালিয়াকৈরে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সন্তানদের প্রতিবাদ সমাবেশ  অনুষ্ঠিত।। নগরীর অলিগলি হতে মুল সড়ক ব্যাটারি চালিত অবৈধ অটোরিকশার দখলে।। ফরিদপুরে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া।। তিতাসে আ.লীগের বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচী অনুষ্ঠিত।। লিওনেল মেসি ভক্তরা বড় দুঃসংবাদ পেলেন।। ঢাবি হলে স্বাধীনতাবিরোধী প্রেতাত্মারা তাণ্ডব চালিয়েছে – মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী।। সদরপুরে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের বিরুদ্ধে চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন।। কোটা সংষ্কার আন্দোলন- রামগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ।। পাবনায় বিদ্যুৎপৃষ্টে স্কুল পড়ুয়া ভাইবোনের মৃত্যু।। বুধবার থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ।। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা- শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ।। কোটা আন্দোলনের নেতৃত্বে দিচ্ছে তারেক –  ওবায়দুল কাদের।। বাংলাদেশ জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ২ বাসে আগুন।। নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সারাদেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা।। নরসিংদী কোটা সংস্করণ আন্দোলন- বাস চলাচল সাময়িক বন্ধ।। চলমান পরিস্থিতি নিয়ে জরুরি বৈঠকে যে সিদ্ধান্ত নিল ইবি প্রশাসন।। কোটা সংস্কার আন্দোলনঃময়মনসিংহেও ছাত্র-ছাত্রীদের সড়ক অবরোধ।। হিলি স্থলবন্দরে আশঙ্কাজনক ভাবে কমেছে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য- কাজ না থাকায় বিপাকে হাজার খানেক শ্রমিক-কর্মচারিরা।। সাম্যবাদী দল ও ১৪ দলীয় জোটের কেন্দ্রীয় নেতার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা।।

কোটা সংস্কার আন্দোলনে ইবির প্রক্টরের একাত্মতা।।

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : 09:52:53 am, Saturday, 6 July 2024
  • 13 বার পড়া হয়েছে

কোটা সংস্কার আন্দোলনে ইবির প্রক্টরের একাত্মতা।।

ইবি প্রতিনিধি।।

২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহাল ও কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের -ইবি- শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করেছেন  বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ।

শনিবার -৬ জুলাই- বেলা সাড়ে ১১টায় শিক্ষার্থীদের পূর্বঘোষিত তৃতীয় দিনের কর্মসূচি চলাকালীন বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা প্রাঙ্গনে এসে তিনি একাত্মতা পোষণ করেন। এসময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয় এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকতে বলেন।

এসময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরাও করতালির মাধ্যমে তাকে সাধুবাদ জানান। শিক্ষার্থীরা বলেন, প্রক্টর স্যার আমাদের আন্দোলনের সাথে একাত্মতা পোষণ করেছেন। এটা আমাদের জন্য আনন্দের বিষয়। যেহেতু আমাদের শিক্ষকরা আমাদের সাথে আছেন- আমাদের বিশ্ আমাদের দাবি বাস্তবায়ন হবে।

এ বিষয়ে প্রক্টর বলেন- এটা যেহেতেু শিক্ষার্থীদের চাকরির বিষয়- তারা যাতে চাকরিতে বেশি সুযোগ-সুবিধা পায় তাই তাদের সাথে একাত্মতা পোষণ করেছি। আমাদের সময় আমি বিসিএসে শিক্ষা ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছিলাম। কিন্তু কোটার কারণে দেখা গেল আমার চেয়ে কম নম্বর পেয়েও আমার বন্ধুরা ম্যাজিস্ট্রেট হয়ে গেল। তাই আমরাও চাই শিক্ষার্থীদের দাবি বাস্তবায়ন হোক। তবে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি না করে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণে যা যা করা যায় সেটাই করতে হবে।

পরে প্রক্টর চলে যাওয়ার পর শিক্ষার্থীরা সেখান থেকে পদযাত্রা বের করে। এটি ক্যাম্পাসের প্রধান ফটক হয়ে কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক দিয়ে ক্যাম্পাস সংলগ্ন শেখপাড়া বাজার প্রদক্ষিণ করে। পরে ১২টার দিকে প্রধান ফটকের সামনে এসে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেন। এসময় মুষলধারে বৃষ্টি হলেও আন্দোলনকারীরা সড়ক ছাড়েননি। এদিকে অবরোধের প্রায় আধাঘন্টা পর সড়ক থেকে সরে যান শিক্ষার্থীরা।

এসময় শিক্ষার্থীরা স্বাধীন এই বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই- চাকরিতে কোটা- মানি না- মানবো না- মুক্তিযুদ্ধের বাংলায়- কোটার ঠাঁই নাই- সারা বাংলায় খবর দে- কোটা প্রথার কবর দে- কোটা পদ্ধতি নিপাত যাক- মেধাবীরা মুক্তি পাক- ১৮ সালের পরিপত্র- পুনর্বহাল করতে হবে- কোটা প্রথায় নিয়োগ পেলে- দুর্নীতি বাড়ে প্রশাসনে’সহ নানা স্লোগান দেন। এছাড়া শিক্ষার্থীদের ২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহালের দাবি সম্বলিত বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন প্রদর্শন করতে দেখা যায়।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, কোটাপ্রথা সম্পূর্ণ অবৈধ এবং অসাংবিধানিক। সাংবিধানিকভাবে এটি শুধুমাত্র পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য। কোটাপ্রথার মাধ্যমে আমাদের অধিকারের উপর লাথি মারা হচ্ছে। এই আন্দোলন  আমাদের অধিকার আদায়ের আন্দোলন। আমরা বাতিল নয়- সংস্কারের পক্ষে দাড়িয়েছি। আর কোনও হঠকারী সিদ্ধান্ত চাই না। যতক্ষণ পর্যন্ত হাইকোর্ট থেকে একটি সন্তোষজনক সমাধান না আসবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

এর আগে গত ২ ও ৪ জুলাই কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও ছাত্র সমাবেশ করে শিক্ষার্থীরা।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর নির্দেশে নির্মিত চার সড়কের উদ্বোধন।।

পেকুয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্লাবিত,২ শত পরিবার পানিবন্দী।।

কোটা সংস্কার আন্দোলন -ময়মনসিংহে লাঠিসোটা হাতে শিক্ষার্থীদের রাস্তা অবরোধ- বিজিবি মোতায়েন।।

কোটা সংস্কার আন্দোলনে ইবির প্রক্টরের একাত্মতা।।

আপডেট সময় : 09:52:53 am, Saturday, 6 July 2024

ইবি প্রতিনিধি।।

২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহাল ও কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের -ইবি- শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করেছেন  বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ।

শনিবার -৬ জুলাই- বেলা সাড়ে ১১টায় শিক্ষার্থীদের পূর্বঘোষিত তৃতীয় দিনের কর্মসূচি চলাকালীন বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা প্রাঙ্গনে এসে তিনি একাত্মতা পোষণ করেন। এসময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয় এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকতে বলেন।

এসময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরাও করতালির মাধ্যমে তাকে সাধুবাদ জানান। শিক্ষার্থীরা বলেন, প্রক্টর স্যার আমাদের আন্দোলনের সাথে একাত্মতা পোষণ করেছেন। এটা আমাদের জন্য আনন্দের বিষয়। যেহেতু আমাদের শিক্ষকরা আমাদের সাথে আছেন- আমাদের বিশ্ আমাদের দাবি বাস্তবায়ন হবে।

এ বিষয়ে প্রক্টর বলেন- এটা যেহেতেু শিক্ষার্থীদের চাকরির বিষয়- তারা যাতে চাকরিতে বেশি সুযোগ-সুবিধা পায় তাই তাদের সাথে একাত্মতা পোষণ করেছি। আমাদের সময় আমি বিসিএসে শিক্ষা ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছিলাম। কিন্তু কোটার কারণে দেখা গেল আমার চেয়ে কম নম্বর পেয়েও আমার বন্ধুরা ম্যাজিস্ট্রেট হয়ে গেল। তাই আমরাও চাই শিক্ষার্থীদের দাবি বাস্তবায়ন হোক। তবে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি না করে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণে যা যা করা যায় সেটাই করতে হবে।

পরে প্রক্টর চলে যাওয়ার পর শিক্ষার্থীরা সেখান থেকে পদযাত্রা বের করে। এটি ক্যাম্পাসের প্রধান ফটক হয়ে কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক দিয়ে ক্যাম্পাস সংলগ্ন শেখপাড়া বাজার প্রদক্ষিণ করে। পরে ১২টার দিকে প্রধান ফটকের সামনে এসে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেন। এসময় মুষলধারে বৃষ্টি হলেও আন্দোলনকারীরা সড়ক ছাড়েননি। এদিকে অবরোধের প্রায় আধাঘন্টা পর সড়ক থেকে সরে যান শিক্ষার্থীরা।

এসময় শিক্ষার্থীরা স্বাধীন এই বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই- চাকরিতে কোটা- মানি না- মানবো না- মুক্তিযুদ্ধের বাংলায়- কোটার ঠাঁই নাই- সারা বাংলায় খবর দে- কোটা প্রথার কবর দে- কোটা পদ্ধতি নিপাত যাক- মেধাবীরা মুক্তি পাক- ১৮ সালের পরিপত্র- পুনর্বহাল করতে হবে- কোটা প্রথায় নিয়োগ পেলে- দুর্নীতি বাড়ে প্রশাসনে’সহ নানা স্লোগান দেন। এছাড়া শিক্ষার্থীদের ২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহালের দাবি সম্বলিত বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন প্রদর্শন করতে দেখা যায়।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, কোটাপ্রথা সম্পূর্ণ অবৈধ এবং অসাংবিধানিক। সাংবিধানিকভাবে এটি শুধুমাত্র পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য। কোটাপ্রথার মাধ্যমে আমাদের অধিকারের উপর লাথি মারা হচ্ছে। এই আন্দোলন  আমাদের অধিকার আদায়ের আন্দোলন। আমরা বাতিল নয়- সংস্কারের পক্ষে দাড়িয়েছি। আর কোনও হঠকারী সিদ্ধান্ত চাই না। যতক্ষণ পর্যন্ত হাইকোর্ট থেকে একটি সন্তোষজনক সমাধান না আসবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

এর আগে গত ২ ও ৪ জুলাই কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও ছাত্র সমাবেশ করে শিক্ষার্থীরা।