Dhaka , Tuesday, 16 July 2024
নিবন্ধন নাম্বারঃ ১১০, সিরিয়াল নাম্বারঃ ১৫৪, কোড নাম্বারঃ ৯২
শিরোনাম ::
কোটা সংস্কার আন্দোলন- ইবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ।। সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত।। দেবহাটার সরকারি কেবিএ কলেজ ও সোনালী ব্যাংক পিএলসির চুক্তি স্বাক্ষর।। দেবহাটায় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ বিষয়ক সভা।। সন্ত্রাসী হাফিজর বহিষ্কার চান ইবি শিক্ষার্থীরা।। তিতাসে আ.লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।। ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভুলতা-গাউছিয়া ফের হকারদের দখলে।। মধ্য ভাদুর প্রাইমারি স্কুল নির্মান বন্ধে আদালতে মামলা- শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ চরমে।। কোটা বিরোধী বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে নীলফামারী সাধারণ শিক্ষার্থীরা।। মোংলা বন্দরে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করলেন চেয়ারম্যান।। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়- মধ্যরাতে ক্যাম্পাসে আমি রাজাকার স্লোগান প্রতিবাদে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ।। গাজীপুরে অবৈধ গ্যাস ব্যবহারের দায়ে দুই জনকে জরিমানা।। শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে এসে ঈশ্বরদীতে ট্রেনে কেটে জামাইয়ের মৃত্যু।। পাবিপ্রবির হলে শিক্ষার্থীকে মেরে হাসপাতালে পাঠালেন ছাত্রলীগ নেতা।। বরগুনায় ২ কেজি গাঁজা সহ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক।। মধ্যরাতে হঠাৎ উত্তাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হল ছেড়ে রাস্তায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল।। শেরপুরে জাতীয় পার্টির সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ এর ৫ম মৃত্যু বার্ষিকী পালন।। দেবহাটায় যুবদের হুইসেল ব্লোয়ার হিসেবে অন্তর্ভুক্তিকরণ সভা।।  সুবর্ণচরে বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা অপরিচিত মুঠোফোন কলের সূত্র ধরে হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন- গ্রেপ্তার ৩।। সদরপুরে মৃত্যুর ৫ দিন পর বাড়ি ফিরলেন তরুণী ১০ মাস পর কবর থেকে তোলা হল লাশ।। তিতাসে ধ্বসে পড়ে গেল ডাকবাংলোর সীমানা প্রাচীর।। রামগঞ্জ শিশুপার্কটি ধুধু মরুভূমি- উপরে ফিটফাট-ভিতরে ফাঁকা মাঠ।। রূপগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে এলাকাবাসীর মতবিনিময়।। তিতাসে ইবতেদায়ী মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত।। বই বিক্রি যার নেশা।। হারানো মোবাইল উদ্ধার করে বুঝিয়ে দিল মোংলা থানা পুলিশ।। কোটা সংস্কারে রাষ্ট্রপতি বরাবর পবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি।। কৃষকদের কাছে সার পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর- শিল্পমন্ত্রী।। রাজধানীর আশুলিয়ায় ১২ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার- গ্রেপ্তার ১জন।। পাবনার এক চরমপন্থি নেতাকে রাজবাড়ীতে পিটিয়ে হত্যা।।

টানা বৃষ্টিতে বিচ্ছিন্ন খাগড়াছড়ি।।

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : 02:36:11 pm, Tuesday, 2 July 2024
  • 7 বার পড়া হয়েছে

টানা বৃষ্টিতে বিচ্ছিন্ন খাগড়াছড়ি।।

মোহাম্মদ কেফায়েত উল্লাহ

খাগড়াছড়ি থেকে।।  

 

গত কয়দিনের টানা বৃষ্টিতে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি। বিশেষত গতকাল দুপুরের পর থেকে শুরু হওয়া অবিরাম ভারী বর্ষণে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় পাহাড় ধ্বস ও জলাবদ্ধতা দেখা দেয় প্রকটভাবে।

টানা বৃষ্টির ফলে খাগড়াছড়ি জেলা সদর, মহালছড়ি ও দীঘিনালা উপজেলায় মারাত্মক জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। জেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় এবং মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাপমারা এলাকায় খাগড়াছড়ি টু ঢাকা-চট্টগ্রাম সড়কে পাহাড় ধ্বসের ঘটনা ঘটেছে। জলাবদ্ধতা ও পাহাড় ধ্বসের কারণে আন্ত:জেলা ও অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে জেলা সদরের সাথে।

মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাপমারা এলাকায় পাহাড় ধ্বসের কারণে রাত ১২ থেকে সকাল  ০৯ টা পর্যন্ত খাগড়াছড়ি  টু চট্টগ্রাম-ঢাকা সড়ক যোগাযোগ বন্ধ ছিলো। জেলার সড়ক ও জনপদ বিভাগ এবং ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহায়তায় যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক করা হয়েছে ইতোমধ্যে।

এদিকে টানা বৃষ্টির ফলে জেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। খাগড়াছড়ি পৌরসভার ৬ টি ওয়ার্ডে জলাবদ্ধতার খবর পাওয়া গেছে। খাগড়াছড়ি বাস টার্মিনাল- কলেজ পাড়া- খবং পুড়িয়া- বাঙ্গালকাঠি- মুসলিম পাড়া- মহিলা কলেজ সড়ক- বটতলী- গোলাবাড়ি-গঞ্জপাড়া- শান্তি নগর- মাস্টার পাড়া, মিলনপুর ও মধুপুর এলাকা জলাবদ্ধ হয়ে পড়েছে। জেলা সদরের চেঙ্গি নদীর কুল ঘেষে নিম্নাঞ্চল পাহাড়ি ঢলের পানিতে তলিয়ে গেছে। সদর উপজেলার মাইসছড়ি ইউনিয়নের অনেক এলাকা ডুবে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

মাইনি নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে দীঘিনালা উপজেলার বোয়ালখালী- মেরুং- লংগুদু- বেতছড়ি- কবাখালিসহ অনেক এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ফলে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে পর্যটন কেন্দ্র সাজেক ও বাঘাইছড়ি উপজেলা। পাহাড়ি ঢলের কারণে চেঙ্গি নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে প্লাবিত হয়েছে মহালছড়ি উপজেলার নিম্নাঞ্চল। ফলে রাঙ্গামাটির সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে খাগড়াছড়ি জেলা সদরের। ঘরবন্ধী হয়ে পড়েছে জেলার কয়েক হাজার পরিবার।

খাগড়াছড়ি জেলার স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে গতকাল থেকেই ভারী বর্ষণের কারণে  পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদে সরিয়ে নিতে তৎপরতা শুরু করে। এখনো সতর্কতা জারি করে প্রচারণা চালানো হচ্ছে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ত্যাগ করে আশ্রয় কেন্দ্র গুলোতে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে।

খাগড়াছড়ি ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উপ সহকারী পরিচালক মোঃ জাকের হোসেন জানান- আমরা সব সময় প্রস্তুত আছি। গত রাত ১২ টার দিকে মাটিরাঙ্গার সাপমারা এলাকায় পাহাড় ধ্বসের খবর পেয়ে সকাল ৮ টা পর্যন্ত কাজ করেছি। জেলার বিভিন্ন উপজেলায় আমাদের ফায়ার সার্ভিসের টীম কাজ করে যাচ্ছেন।

খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়- পাহাড় ধ্বসের ঝুঁকিতে থাকা এলাকার আশ্রয়কেন্দ্র গুলো প্রস্তুত রয়েছে।
শুকনো খাবার মজুদ রাখা আছে। ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকায় পাহাড় ধ্বসের ঝুঁকির পাশাপাশি নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় জনসাধারণকে নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়ার প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

জেলা প্রশাসন- উপজেলা প্রশাসন ও মেয়রসহ স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ প্লাবিত অঞ্চল পরিদর্শন করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর নির্দেশে নির্মিত চার সড়কের উদ্বোধন।।

পেকুয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে প্লাবিত,২ শত পরিবার পানিবন্দী।।

কোটা সংস্কার আন্দোলন- ইবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ।।

টানা বৃষ্টিতে বিচ্ছিন্ন খাগড়াছড়ি।।

আপডেট সময় : 02:36:11 pm, Tuesday, 2 July 2024

মোহাম্মদ কেফায়েত উল্লাহ

খাগড়াছড়ি থেকে।।  

 

গত কয়দিনের টানা বৃষ্টিতে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি। বিশেষত গতকাল দুপুরের পর থেকে শুরু হওয়া অবিরাম ভারী বর্ষণে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় পাহাড় ধ্বস ও জলাবদ্ধতা দেখা দেয় প্রকটভাবে।

টানা বৃষ্টির ফলে খাগড়াছড়ি জেলা সদর, মহালছড়ি ও দীঘিনালা উপজেলায় মারাত্মক জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। জেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় এবং মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাপমারা এলাকায় খাগড়াছড়ি টু ঢাকা-চট্টগ্রাম সড়কে পাহাড় ধ্বসের ঘটনা ঘটেছে। জলাবদ্ধতা ও পাহাড় ধ্বসের কারণে আন্ত:জেলা ও অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে জেলা সদরের সাথে।

মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাপমারা এলাকায় পাহাড় ধ্বসের কারণে রাত ১২ থেকে সকাল  ০৯ টা পর্যন্ত খাগড়াছড়ি  টু চট্টগ্রাম-ঢাকা সড়ক যোগাযোগ বন্ধ ছিলো। জেলার সড়ক ও জনপদ বিভাগ এবং ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহায়তায় যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক করা হয়েছে ইতোমধ্যে।

এদিকে টানা বৃষ্টির ফলে জেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। খাগড়াছড়ি পৌরসভার ৬ টি ওয়ার্ডে জলাবদ্ধতার খবর পাওয়া গেছে। খাগড়াছড়ি বাস টার্মিনাল- কলেজ পাড়া- খবং পুড়িয়া- বাঙ্গালকাঠি- মুসলিম পাড়া- মহিলা কলেজ সড়ক- বটতলী- গোলাবাড়ি-গঞ্জপাড়া- শান্তি নগর- মাস্টার পাড়া, মিলনপুর ও মধুপুর এলাকা জলাবদ্ধ হয়ে পড়েছে। জেলা সদরের চেঙ্গি নদীর কুল ঘেষে নিম্নাঞ্চল পাহাড়ি ঢলের পানিতে তলিয়ে গেছে। সদর উপজেলার মাইসছড়ি ইউনিয়নের অনেক এলাকা ডুবে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

মাইনি নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে দীঘিনালা উপজেলার বোয়ালখালী- মেরুং- লংগুদু- বেতছড়ি- কবাখালিসহ অনেক এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ফলে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে পর্যটন কেন্দ্র সাজেক ও বাঘাইছড়ি উপজেলা। পাহাড়ি ঢলের কারণে চেঙ্গি নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে প্লাবিত হয়েছে মহালছড়ি উপজেলার নিম্নাঞ্চল। ফলে রাঙ্গামাটির সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে খাগড়াছড়ি জেলা সদরের। ঘরবন্ধী হয়ে পড়েছে জেলার কয়েক হাজার পরিবার।

খাগড়াছড়ি জেলার স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে গতকাল থেকেই ভারী বর্ষণের কারণে  পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদে সরিয়ে নিতে তৎপরতা শুরু করে। এখনো সতর্কতা জারি করে প্রচারণা চালানো হচ্ছে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ত্যাগ করে আশ্রয় কেন্দ্র গুলোতে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে।

খাগড়াছড়ি ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উপ সহকারী পরিচালক মোঃ জাকের হোসেন জানান- আমরা সব সময় প্রস্তুত আছি। গত রাত ১২ টার দিকে মাটিরাঙ্গার সাপমারা এলাকায় পাহাড় ধ্বসের খবর পেয়ে সকাল ৮ টা পর্যন্ত কাজ করেছি। জেলার বিভিন্ন উপজেলায় আমাদের ফায়ার সার্ভিসের টীম কাজ করে যাচ্ছেন।

খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়- পাহাড় ধ্বসের ঝুঁকিতে থাকা এলাকার আশ্রয়কেন্দ্র গুলো প্রস্তুত রয়েছে।
শুকনো খাবার মজুদ রাখা আছে। ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকায় পাহাড় ধ্বসের ঝুঁকির পাশাপাশি নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় জনসাধারণকে নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়ার প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

জেলা প্রশাসন- উপজেলা প্রশাসন ও মেয়রসহ স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ প্লাবিত অঞ্চল পরিদর্শন করেছেন।